মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English

বকশীগঞ্জে ছাত্রলীগের নেতাকে মারধরের অভিযোগে তাঁতীলীগের নেতা বহিস্কার

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১১ মে, ২০২২
  • ১০১৩ জন সংবাদটি পড়ছেন

একটি চক্র পুরো বকশীগঞ্জকে সন্ত্রাসের রাজপথ বানাতে চায়। এরই ধারাবাহিকতায় প্রায় ১০ কিলোমিটার দুরে বাড়ী হলেও চরম দুঃসাহস দেখিয়ে সাধুরপাড়া ইউনিয়নে আসে সন্ত্রাস কায়েম করে রেজাউলকে মারতে আসে। সাধুরপাড়ার জনগণ শান্তি প্রিয় এখানে কোন সন্ত্রাসের জায়গা হতে দিবেনা।

স্টাফ রিপোর্টারঃ জামালপুরের বকশীগঞ্জে উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্ববায়ক কমিটির সদস্য মোঃ কামাল হোসেনকে মারধরের অভিযোগে সাধুরপাড়া তাঁতীলীগের সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিমকে বহিস্কার করেছে বকশীগঞ্জ উপজেলা তাঁতীলীগ।

বুধবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন বকশীগঞ্জ উপজেলা তাঁতীলীগের সভাপতি রাকিবিল্লাহ রাকিব।

সদ্য বহিস্কৃত রেজউল করিম জনান, বগারচর ইউনিয়নের সারমারা গ্রামের খোকা মিয়ার ছেলে ও উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য (বিবাহিত) মোঃ কামাল হোসেন সাধুরপাড়া ইউনিয়ন তাঁতীলীগ নিয়ে কুরুচিপুর্ণ মন্তব্য করলে এতে তীব্র প্রতিবাদ করলে প্রতিবাদ করেন তিনি।

পরে ক্ষুব্দ হয়ে কামাল হোসেন ও তার সহযোগিরা রেজাউলকে মারার হুমকি দেয়। মঙ্গলবার বিকালে রেজাউলকে মারতে সাধুরপাড়া ইউনিয়নের বটতলায় আসেন। এ সময় বটতলা এলাকায় রেজাউলসহ তার আত্মীয় স্বজনরাও অবস্থান করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে কামালের সহযোগিরা পালিয়ে গেলেও কামালকে মারধর করা হয়।

সাধুরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও পরপর দুইবার নির্বাচিত জনপ্রিয় চেয়ারম্যান মাহামুদুল আলম বাবুকে নিয়ে বাজে মন্তব্য..

স্থানীয়রা জানান, একটি চক্র পুরো বকশীগঞ্জকে সন্ত্রাসের রাজপথ বানাতে চায়। এরই ধারাবাহিকতায় প্রায় ১০ কিলোমিটার দুরে বাড়ী হলেও চরম দুঃসাহস দেখিয়ে সাধুরপাড়া ইউনিয়নে আসে সন্ত্রাস কায়েম করে রেজাউলকে মারতে আসে। সাধুরপাড়ার জনগণ শান্তি প্রিয় এখানে কোন সন্ত্রাসের জায়গা হতে দিবে না।

তারা আরও জানান, রেজাউল কোন অন্যায় করেনি, তাঁতীলীগের বিরুদ্ধে মন্তব্য করার অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছে। তার বিরুদ্ধে এই অন্যায় বহিস্কারাদেশ দ্রুত প্রত্যাহারেও দাবী জানান তারা।

এ বিষয়ে কামাল হোসেনকে ফোন দিলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

প্রসঙ্গত, এই কামাল হোসেনের কুরুচিপুর্ণ মন্তব্য থেকে রক্ষা পায়নি, স্থানীয় এমপি আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা মহিলালীগের সভাপতি শাহিনা বেগম, বকশীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম সওদাগর, উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি জোহরা বেগম, সাধুরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও চেয়ারমন্যান মাহামুদুল আলম বাবু, উপজেলা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও বিশিষ্ট্য ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম ও সাংবাদিক গোলাম রাব্বানী নাদিম।

বিভিন্ন সময়ে তিনি এসব ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুরুচিপুর্ণ মন্তব্য করে থাকেন এই কামাল হোসেন।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102