শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:০৭ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English

জামালপুরে ৬টিতে নৌকা ও ৪টিতে বিদ্রোহী প্রার্থীরা জয়ী

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১২ নভেম্বর, ২০২১
  • ৭০১ জন সংবাদটি পড়ছেন

জামালপুরঃ জামালপুরে ১৫টি ইউনিয়নে ফলাফল ঘোষনা হয়েছে। এর মধ্য ৫টি ইউনিয়নের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নৌকার প্রার্থীরা জয়ী হয়। বাকী ১০ টি ইউনিয়নের নৌকার ৬টি ও বিদ্রোহী প্রার্থীরা জয়ী হয়।

কেন্দ‍ুয়া ইউনিয়নের সাইফুল ইসলাম খান আনারস প্রতীক নিয়ে ১৬ হাজার ১৬৭, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি শেখ মাহাবুবুর রহমান (নৌকা) ৪ হাজার ৮৮৫।

শরীফপুর ইউনিয়নে আলম আলী নৌকা নিয়ে ১৬ হাজার ৯১৯ নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকতম প্রতিদ্বন্দি রফিকুল ইসলাম লিটন অটো-রিক্সা প্রতীকে ৪ হাজার ২৬৩ ভোট।

লক্ষীরচর ইউনিয়নে মনিরুজ্জামান আনারস প্রতিক নিয়ে ভোট পেয়েছেন ৫ হাজার ৬২৫। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দি আফজাল হোসেন বিদ্যুৎ ৪ হাজার ৮৯৮।

তুলশিরচর ইউনিয়নে শহিদুল্লাহ নৌকা প্রতীক নিয়ে ৯ হাজার ০৭৪ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দি মমিনুল হক আনারস ৮ হাজার ৫০৪ ভোট।

নরুন্দি ইউনিয়নে লুৎফর রহমান নৌকা নিয়ে ভোট পেয়েছেন ৯ হাজার ৩২১ ভোট। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দি মোঃ আলা উদ্দিন খান আলম মোটর সাইকেল ৫ হাজার ১০৩ ভোট।

ঘোড়াধাপ ইউনিয়নে গোলাম কিবিরিয়া ঘোড়া প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৬ হাজার ৬৬ ভোট। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দি জিয়াউর রহমান তালুকদার আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫ হাজার ৬৯১ ভোট।

শ্রীপুর ইউনিয়নে মো আজিজুল হক নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১২ হাজার ৯৩৭ ভোট। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোহাম্মদ রফিক উল আলম ঘোড়া প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ হাজার ৬৬০ ভোট।

শাহাবাজপুর ইউনিয়নে মো আইয়ুব আলী নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১২ হাজার ৯৩৭ ভোট। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ রফিকুল ইসলাম আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৯ হাজার ২৪৬ ভোট।

তিতপল্যা ইউনিয়নের মোঃ আজিজুর রহমান নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১০ হাজার ২১৭ ভোট। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দ্বি হারুনুর রশীদ আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৮ হাজার ৪৪৭ ভোট।

মেষ্টা ইউনিয়নে নাজমুল হক আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৭ হাজার ৩৯৩ ভোট। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ এমদাদুলক ইসলাম খান মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ৯৮৮ ভোট।

২য় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৭ শত ৫৫ জন। যার মধ্যে ১ লাখ ৯৬ হাজার ৭ শত ৫৪ জন পুরুষ এবং ২ লাখ ৪ হজার ১ জন নারী । ১৩৫ টি ওয়ার্ডের মধ্যে সংরক্ষিত ওয়ার্ড সংখ্যা ৪৫ টি।১৬৩ টি ভোট কেন্দ্রের মোট ভোট কক্ষের সংখ্যা  ১০১২ টি। নির্বাচনে চেয়ার ম্যান পদে ১০ টি ইউনিয়নে ৪০ জন  ভোটে অংশগ্রহন করে। বাকী ৫ টি ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান  নির্বাচিত হয়।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত ইউনিয়ন গুলো হলো রানাগাছা, দিগপাইত, ইটাইল, রশিদপুর, বাশচড়া ইউনিয়ন।

এ ছাড়া  সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৫৪২ জন প্রার্থী ও সংরক্ষিত মহিলা পদে ১৮৪ জন প্রার্থী ভোটে অংশগ্রহন করে।

 

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102