বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জে সংবাদ প্রকাশের জের, থানায় চাঁদাবাজীর অভিযোগ করল আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য বকশীগঞ্জে রহস্য উদঘাটন করলেন ওসি, জিজ্ঞাসাবাদে জানালো সে বাংলাদেশী বকশীগঞ্জে এসডিজি নীতিমালা বাস্তবায়ন ও প্রত্যাশা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত বকশীগঞ্জে জনতার হাতে আটক ভারতীয় নাগরিককে উদ্ধার করল পুলিশ বকশীগঞ্জে কর্মরত পুলিশ কনেস্টবল নিজামের অর্থে ১ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার বকশীগঞ্জে দিনমজুর সেজে গণধর্ষন মামলার আসামী গ্রেফতার করল পুলিশ বকশীগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক দলের দুই ইউনিটের আহ্বায়ক কমিটি গঠিত বকশীগঞ্জে শ্বশুর ও দেবরের নির্যাতনে মৃত্যু শয্যায় গৃহবধু বকশীগঞ্জে নারীসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক ৬ দফা দিবসে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

জোহুরার গল্প শোনলেন ইউএনও লিজা, দিলেন পাশে থাকার আশ্বাস

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১
  • ২০৮ জন সংবাদটি পড়ছেন

স্টাফ রিপোর্টারঃ জাতীয় পরিচয় পত্রে মৃত জোহুরার সাথে বসে তার জীবনের গল্প শোনলেন বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনমুন জাহান লিজা। শোনলেন জোহুরার অসহায়ত্বের কথা। আশ্বাস দিলেন পাশে থাকার।

মুসলমানদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদে পরিবার পরিজন ফেলে সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক কর্মস্থলেই ঈদ করছেন তিনি। এই উপজেলার মানুষদেরকেই নিজের পরিজন হিসাবে আপন করে নিয়ে যাচ্ছেন অসহায়দের দ্বারে দ্বারে।

সরকারী ও বেসরকারী যেভাই হোক কারও হাতে কিছু দিতে পারলেই আনন্দে মেতে উঠেন তিনি।

জোহুরা পাশ্বে থাকার প্রত্যয় নিয়ে নিজের ফেসবুক টাইম লাইনে দেন আবেগঘন স্ট্যাটাস…

তিনি লেখেন ‘‘ জীবিত থেকেও ন্যাশনাল আইডি কার্ডে মৃত প্রতিবন্ধী জহুরা বেওয়াকে আজ দেখতে গিয়েছিলাম। যাওয়ার সাথে সাথে বসতে দিলো। কিছুক্ষণ কথা হলো তার সাথে। জগৎ সংসারে আপন বলতে তার কেউ নেই। কোন সন্তান হয়নি তার। স্বামী বেশ আগেই মারা গিয়েছে। কোনরকম দিন পার করে তার জীবন চলে যাচ্ছে।

ঈদের আগে অল্প কিছু সহায়তা (নতুন শাড়ি সহ খাদ্য সামগ্রী) উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে আবারো তার কাছে পৌঁছে দিয়ে আসলাম। আর কথা দিয়েছি তার পাশে থাকবো বলে।

আসার পথে বারবার মনে হচ্ছিলো, হয়তো জহুরা বেওয়ার মতো অনেক অসহায় মানুষ-ই আমাদের আশেপাশে রয়েছে যাদের খোঁজ আমরা জানি না! পথে খুঁজে আরো কিছু অসহায় মানুষকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করেছি। আর বিগত কয়েকদিনে যারা ফোনে সহায়তা চেয়েছেন তাদেরকেও পৌঁছে দিয়েছি সাধ্যের মধ্যে অল্প কিছু সহযোগিতা। খুব বেশি কিছু হয়তো পারিনি, তবুও আমরা সবাই মিলে অসহায় এই মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ালে একটু হলেও তারা উপকৃত হবেন।

আসুন, আমরা আমাদের পাশের বাড়ির মানুষটির খোঁজ নিই ও সাধ্যের মধ্যে যতোটুকু পারা যায় সহযোগিতা করি ”

ঈদ মুবারক…

 

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102