বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:১৩ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :

আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের জামালপুর জেলার সভাপতি রাজাকার কন্যা! প্রতিবাদ

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২ জুলাই, ২০১৮
  • ১৪৬৬ জন সংবাদটি পড়ছেন




বিশেষ প্রতিনিধিঃ জামালপুরে জেলা শাখার বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি শাহিনা বেগমকে রাজাকারের কন্যা হিসাবে চিহ্নিত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলেন জামালপুর জেলা শহর  আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের সাধারন সম্পাদক ওবাইদুর রহমান জীবন।
এছাড়া এই কমিটি পরিবর্তণের দাবীও করেন মিঃ জীবন।
এ বিষয়ে ওবাইদুর রহমান জীবন সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জে মুঠোফোনে বলেন, একজন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান হিসাবে আমরা একজন রাজাকার সন্তানকে মুক্তিযুদ্ধ শব্দটি ব্যবহার করতে দিতে পারি না।
তিনি দ্রুত এই কমিটি বাতিল করে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের অর্ন্তভুক্ত করার দাবি জানিয়ে বলেন, এ কমিটি বাতিল না করা হলে কর্মসুচী দেওয়া হবে। এ বিষয়ে মুক্তযোদ্ধা সন্তানদের মধ্যে আলাপ আলোচনা চলছে বলেও তিনি জানান।
ইংরেজীতে ওবাইদুর রহমান জীবনের ফেসবুকের লাইমলাইনে লেখেন “ যেখানে রাজাকার এর মেয়ে মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগ এর সভাপতি, এ কমিটিতে মুক্তিযোদ্ধা নাম থাকতে পারে না”
এর আগে “ হাইরে দেশের অবস্থা রাজাকার এর মেয়ে,, মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগ এর জামালপুর জেলার সভাপতি’’
তার এই স্ট্যাস্টাস দুটিতে প্রায় অর্ধশতাধীক কমেন্ট করে এ বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন ফেসবুক ব্যবহারকারী।



এদিকে এ ধরনের অপ্রচারে নবগঠিত প্রজণ¥লীগের সভাপতি শাহিনা বেগম ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তিনি জানান, আমরা বাবা যুদ্ধাপরাধী বা স্বাধীনতার বিপক্ষ শক্তি ছিল না। একটি চক্র আমার বাবাকে যুদ্ধাপরাধী হিসাবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য ২০১০ সালে চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছে।
তিনি এ কথার সাথে যোগ করে শাহিনা বেগম আরও বলেন, আমরা আওয়ামীলীগের পরিবার। আমাদের পরিবার সর্ম্পকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেও জানেন। সবকিছু খোজ খবর নিয়ে গত পৌর নির্বাচনে আমাকে মেয়র পদে আওয়ামীলীগের সভানেত্রী মনোনয়ন দিয়েছিলেন।



এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি আবু জাফর জানান, শাহিনার বাবা রাজাকার ছিলেন না, একটা প্রেক্ষাপটে তার বাবার বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ হিসাবে একটি মামলা করা হয়েছিল পরে বাদী তা প্রত্যাহার করে নেয়।
প্রসঙ্গত,সম্প্রতি জামালপুর জেলা শাখায় জেলা আওয়ামীলীগের বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ মেডিসিনের বোন শাহিনা বেগমকে সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরীর স্ত্রী আঞ্জুমান আরা হেনাকে সাধারন সম্পাদক করে একটি কমিটি দেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ প্রজন্মলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শেখ মুন্নী ও সাধারন সম্পাদক নাসির উদ্দিন শিশির ।
১ জুলাই এ উপলক্ষে জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলা অডিটরিয়ামে একটি মতবিনিময় সভায় জামালপুর জেলা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের কমিটি প্রকাশিত হয়।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102