রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ১০:৫১ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English

জামালপুরে বাবুল চিশতির ফাঁসির দাবিতে মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০১৮
  • ১৩৮৭ জন সংবাদটি পড়ছেন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ ফার্মাস ব্যাংকের কেলেংকারীতে আটক মাহাবুবুল হক বাবুল চিশতির ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল, সংবাদ সম্মেলন ও স্মারক লিপি দিয়েছে জামালপুরের মুক্তিযোদ্ধারা।রবিবার দুপুরে শহরের দয়াময়ী মোড়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে ঘন্টাব্যাপি মানববন্ধনে অংশ নেয়।

মানববন্ধন শেষে সংবাদ সম্মেলন করে মুক্তিযোদ্ধরা।

সংবাদ সম্মলনে বক্তব্য রাখেন, সাবেক স্বাস্থ্য উপ মন্ত্রী সিরাজুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান হাবিব, যুদ্ধাহত মুক্তযোদ্ধা নুরুল ইসলাম, মনোয়ার হোসেন তাপস, নজরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন, আলতাফুর, ফরহাদ হোসেন, আব্দুল মুন্নাফ, একেএম জহিরুল ইসলাম চৌধুরী।

বাবুল চিশতির ফাঁসি দাবী করে সংবাদ সম্মেলনে বক্তরা বলেন, বাবুল চিশতি একজন চিহ্নিত রাজাকার। মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল ইসলাম ও তার বাবা নচনমহুরীর চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমানকে গাছের সাথে ঝুলিয়ে দুই হাতে লোহার পেরাক মেরে নির্যাতন শেষে নিজ হাতে গুলি করে হত্যা করেছে এই বাবুল চিশতি।এই বাবুল চিশতির কারণে জামালপুর পুরো মুক্তিযোদ্ধারা বিব্রত।পরে এক লিখিত স্মারক লিপি পাঠ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান হাবিব।স্মারকি লিপিতে বীর মুক্তিযোদ্ধারা বলেন, বাবুল চিশতির মতো রাজাকার শুধু বাংলাদেশেই নয়, পৃথিবীর অন্যকোন দেশেও খোজে পাওয়া যাবে না। টাকা ও ক্ষমতা প্রভাব খাটিয়ে একজন চিহ্নিত রাজাকার হয়েও মুক্তিযোদ্ধা হয়েছেন।

বাবুল চিশতি পাকিস্তানি বাহিনীর সাথে হাত মিলিয়ে এলাকার একের পর একে হত্যা, খুন ও অগ্নিসংযোগ করে গেছেন।

মুক্তিযোদ্ধারা আরও বলেন, বাবুল চিশতির বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধে মানুষ হত্যার দায়ের ৩টি হত্যা মামলাসহ একাধিক মামলার আসামী। মোখলেছুর রহমানকে হত্যার দায়ে মামলাটি এখন যুদ্ধাপরাধ ট্রাইবুনালে বিচারাধীন থাকলেও অজ্ঞাত কারণে সেই মামলাটি এখন পর্যান্ত ঝুলে রয়েছে।

এর আগে জামালপুর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ থেকে সাবেক স্বাস্থ্য উপমন্ত্রী সিরাজুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি মিছিল জামালপুর শহর প্রদক্ষিন করে।

পরে কুখ্যাত রাজাকার বাবুল চিশতির বিরুদ্ধে দায়েরকৃত যুদ্ধাপরাধ মামলার চালু করার দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসকেরর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারক লিপি দাখিল করে মুক্তিযোদ্ধারা।জেলা প্রশাসকের পক্ষে স্মারক লিপি গ্রহন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক রাসেল সাবরিন।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102