বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৬:১১ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English

দেওয়ানগঞ্জে ১০ জন র্শিক্ষার্থীকে বেত্রাঘাতের ঘটনায় অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১০ মার্চ, ২০১৮
  • ১৩২০ জন সংবাদটি পড়ছেন

সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ ডেস্ক ঃ জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার এ রব সিনিয়র আলিম মাদারাসার ১০ জন র্শিক্ষার্থীকে বেত্রাঘাত করে গুরুতর আহত করার প্রতিবাদে আজ শনিবার ওই মাদরাসার সামনে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন।

জানা গেছে, আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ রব সিনিয়র আলিম মাদরাসা এলাকায় ওই বিক্ষোভ মিছিলটি করা হয়। মিছিল শেষে মাদরাসার সামনে বিক্ষুব্ধ অভিভাবক ও গুরুতর আহত শিক্ষার্থীদের সহপাঠীসহ শতাধিক গ্রামবাসী মানববন্ধনে অংশ নেয়।

মানববন্ধনকারীরা শিক্ষার্থীদের বেত্রাঘাত করে নির্যাতনকারী ওই মাদরাসার সহকারী অধ্যাপক মো. শফিকুল্লাহ মজনুর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। তারা অভিযোগ করে বলেন, বেত্রাঘাতে ১০ জন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হলেও নির্যাতনকারী ওই শিক্ষক ও তার লোকজনেরা কিছুই হয়নি বলে এলাকায় অপপ্রচার চালাচ্ছে। এ ঘটনায় যাতে কোথাও বিচার প্রার্থনা বা আইনের আশ্রয় না নেয়া হয় এজন্য হুমকিও দেওয়া হচ্ছে।
তারা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ স্থানীয় প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে এ রব সিনিয়র আলিম মাদরাসার দাখিল শ্রেণির কয়েকজন শিক্ষার্থীকে বেত্রাঘাতে আহতের ঘটনা ঘটে। টিফিন পিরিয়ডের পর আর ক্লাসে না আসায় ক্ষুব্ধ হয়ে মাদরাসার আলিম শাখার সহকারী অধ্যাপক মো. শফিকুল্লাহ মজনু ক্লাসে ঢুকে শিক্ষার্থীদের বেত্রাঘাত করেন। বেত্রাঘাতে ১০-১২ জন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়। তাদের মধ্যে দশজন শিক্ষার্থী দেওয়ানগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেয়। গুরুতর আহদের মধ্যে নয়জন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেলেও তাদের মধ্যে সোউরফ হাসানকে গতকাল শুক্রবার দেওয়ানগঞ্জ হাসপাতাল থেকে স্থানান্তর করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে সেখান থেকে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। বর্তমানে সে সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102