রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English

২০১৯ সালে পরীক্ষা হবে নতুন পদ্ধতিতে

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮
  • ৮৬৭ জন সংবাদটি পড়ছেন

২০১৯ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষা নতুন পদ্ধতিতে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন।

তবে চলতি বছরের ২ এপ্রিল থেকে অনুষ্ঠেয় উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সাটিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষা বর্তমান পদ্ধতিতেই হবে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে পাবলিক পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে আয়োজিত সভা শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন সোহরাব হোসাইন।

মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, আমরা যে কোনো পদ্ধতিতে যাই না কেন, তার জন্য নতুন একটি প্রশ্নব্যাংক বানাতে হবে। এজন্য তিন থেকে চারমাস সময় লাগবে। সুতরাং, এইচএসসি পরীক্ষা ধরতে পারছি না। তাই এবার সম্ভব নয়। ইতোমধ্যে এই পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ছাপা হয়ে গেছে। নতুন কোনো পদ্ধতি আগামী এইচএসসি পরীক্ষার আগে নেওয়ার সময় নেই।

তিনি বলেন, আশা করছি ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষা থেকে নতুন কোনো ব্যবস্থা অবশ্যই সরকার নেবে। সেজন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা ও প্রস্তাব অনেকেই করেছেন। অনেকগুলো প্রস্তাব আমাদের হাতে রয়েছে। তবে একটি প্রশ্নব্যাংক তৈরির বিষয়ে সবাই একমত। আমি অনেক আগেই বলেছি এমসিকিউ যে প্রক্রিয়ায় বন্ধ করতে হয় সে প্রক্রিয়ায় আসতে হবে।

‘পরবর্তীতে প্রশ্ন আমরা সরাসরি ছাপাবো কিনা বা পরীক্ষা কেন্দ্রে কোনো ডিভাইস দিতে পারি কিনা- এ ধরনের একটি আলোচনা হয়েছে। বর্তমান অভিজ্ঞতায় কেন্দ্রে প্রশ্ন ছাপিয়ে কোনো লাভ হবে না। এখন যে সময়ে কেন্দ্রে প্রশ্ন যাচ্ছে তাতেই ফাঁস হচ্ছে। আর কেন্দ্রে ছাপাতে হবে একঘণ্টা আগে। সুতরাং, ফাঁস হওয়ার সম্ভাবনা রয়েই যাচ্ছে। এমন কোনো পদ্ধতি আবিষ্কার করা প্রয়োজন যেখানে প্রশ্নপত্র ছাপাও হবে, বিতরণও হবে অথচ ফাঁস হবে না।’

সচিব বলেন, চলমান পরীক্ষার পরিস্থিতি পর্যালোচনা এবং আরও কিছু করার আছে কিনা তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে মূল উদ্দেশ্যে পরীক্ষা শেষ করা। গত তিনদিনের পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস হয়নি। আশা করছি বাকি পরীক্ষাগুলোও নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এইচএসসি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে করতে আর কি করণীয় আছে সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

সোহরাব হোসাইন বলেন, কোনো শিক্ষক, কর্মকর্তার হাতে মোবাইল থাকলে ১৪৪ ধারার সীমানার মধ্যে পাওয়া গেলে ছাড় দেওয়া হবে না। প্রশ্ন যে কোনো জায়গায় যে কোনো ব্যক্তি ধরিয়ে দিতে পারলে তাকে আইসিটি আইনে মামলা করবো। সুষ্ঠু পরীক্ষা নিশ্চিত করতে আমরা সাংবাদিক, অভিবাবকসহ সবার সহযোগিতা চাই। কারণ এটি জাতীয় পরীক্ষা। প্রশ্নফাঁসের সঙ্গে জড়িত ১৫২ জনকে আটক করার পাশাপাশি ৫২টি মামলা হয়েছে জানিয়ে সোহরাব হোসাইন বলেন, এটি অব্যাহত রয়েছে। চলমান থাকবে। নতুন পদ্ধতি নিয়ে আগামী এসএসসি পরীক্ষার আগেই বসা হবে।

ফাঁস হওয়া প্রশ্নে অনুষ্ঠিত পরীক্ষা বাতিল হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে, তারা কাজ করছেন। তারা আমাদের কাছে সুপারিশ করবে। তবে প্রশাসনিকভাবে আমরা সিদ্ধান্ত নিতে চাই না। কারণ এই পরীক্ষা দিয়েছে ২০ লাখ শিক্ষার্থী। তবে আমরা গ্রহণযোগ্য ব্যবস্থা নেবো কমিটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর।

বৈঠকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বাব, এসব মন্ত্রণালয়ের সচিব, উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102