বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English

দ্রুতই বকশীগঞ্জকে জেলা হিসাবে দেখতে চাই

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০১৮
  • ৯৬২ জন সংবাদটি পড়ছেন

গোলাম রাব্বানী নাদিমঃ যমুনা নদীর বিশালতা পেরিয়ে নিজ জেলা কুড়িগ্রামে যাওয়া হয় না।
পড়াশোনাসহ সকল নিত্যপ্রয়োজনীয় আসবাবপত্র বকশীগঞ্জ অথবা জামালপুর থেকেই কেনাকাটা করি।
পড়াশোনা করি মাদারগঞ্জ এ.এইচ.জেড সরকারী কলেজে।
জামালপুর ও বকশীগঞ্জ পাড়ি দিয়ে আমাদের বাড়ীর সাথে যোগাযোগ করতে হয়।
বকশীগঞ্জ জেলা ও উন্নতমানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থাকলে আমাদের আর দুরে যেতে হত না। এভাবেই সিএনজিতে উঠে নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করলেন উল্লেখিত কলেজের ২ শিক্ষার্থী মোখলেছুর রহমান ও সবুজ আহাম্মেদ হিরো।

মোখলেছ রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও সবুজ বাংলা বিভাগ নিয়ে সম্মান ১ম বর্ষে পড়াশোনা করছে।
তাদের সাথে কথা হয় জামালপুর কোর্টে মিথ্যা একটি মামলার হাজিরা দিতে গিয়ে ফেরার পথে সিএনজিতে।
সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার পর তারা তাদের অভিব্যক্তিতে জানালেন, আমরা রাজিবপুর, রৌমারী, বকশীগঞ্জ ও সানন্দবাড়ীক উপজেলা করে এই চারটি উপজেলার সম্বন্বয়ে বকশীগঞ্জকে জেলা চাই।
তাদের এই দাবির পিছনে কিছু যুক্তিও তোলে ধরে বলেন, রাজিবপুর থেকে কুড়িগ্রামের একমাত্র যোগাযোগ মাধ্যম হল নৌকা।
সকাল ৭টা একটা নৌকা ছাড়ে কোনভাবে একমিনিট দেড়ি হলে পরবর্তিতে যেতে ২৪ ঘন্টা লাগে। এছাড়া প্রায় সময়ই ডাকাতিসহ বিভিন্ন দুর্ঘটনায় পতিত হতে হয়।
এ নৌপথে পুরোপুরি নিরাপত্তা জনিত কারনে সমস্ত ব্যবসা বাণিজ্যিক সম্পর্ক হচ্ছে বকশীগঞ্জের সাথে।
জীবনে নিজ জেলা কুড়িগ্রামে একবার যাওয়া হয়েছিল বলেও জানায় মোখলেছ।
উভয় শিক্ষার্থীর দাবি রাজিবপুর ও কুড়িগ্রামের মানুষের কষ্ট লাঘবে দ্রুত সময়ের মধ্যেই বকশীগঞ্জকে যেন জেলায় রূপান্তিত করা হয়।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102