বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জে যুবদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ধানের শীষের সাথে মিশে আছে যার জীবন, সেইতো আব্দুল্লাহ আল সাফি লিপন বকশীগঞ্জে রাতে চালু থাকা ড্রেজারে বালু উত্তোলন বন্ধ করলেন ওসি বকশীগঞ্জে পুজা মন্ডব প‌রিদর্শন ও নগদ অর্থ সহায়তা দিলেন মেয়র নজরুল ইসলাম সওদাগর বকশীগঞ্জে মধ্যবয়সী নারী ধর্ষন, আটক-১ বকশীগঞ্জে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার বকশীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটি বাতিল! দুই মামলায় রাশেদ চিশতির জামিন দেওয়ানগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরের ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানালেন অধ্যাপক সুরুজ্জামান বকশীগঞ্জে পৌর আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের সংর্ঘষ ।। আহত অর্ধশতাধিক

মাটির ব্যাংকে জমানো টাকা দিয়ে অসহায় মানুষের পাশে ছোট্ট লুব্ধক

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২০
  • ৬৮৩ জন সংবাদটি পড়ছেন

 রুদ্র মুসাদ্দেকঃ লুব্ধক হলো আকাশের উজ্জ্বলতম নক্ষত্র। যাকে নিয়ে এই আলোচনা তার নামও লুব্ধক। ছোট্ট লুব্ধক যেনো নক্ষত্রের মতো উজ্জ্বল, আকাশের মতো বিশাল। তার কাজ যেনো তার নামেরই অর্থ প্রকাশ করে।

এডভোকেট মুহাম্মদ সোহেল রানা আকন্দ ও এডভোকেট ওয়াহিদা বেগম বেলীর একমাত্র সন্তান জাহিন আকন্দ লুব্ধক। সে রাজধানীর স্কলার্স স্কুল এন্ড কলেজের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র। ছোট বাচ্চাদের মতোই স্বভাব সুলভ ভাবে সে মাটির ব্যাংকে কিছু টাকা জমিয়েছিলো। করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট জাতীয় মহামারীর এই সময়ে স্বপ্রণোদিতভাবে মাটির ব্যাংক ভেঙে তার জমানো ১০,৬৭৮ টাকা তার দাদাবাড়ি ও নানাবাড়ির কিছু অস্বচ্ছল পরিবারের মাঝে উপহার হিসেবে বিতরণ করে।

সে টেলিভিশনের সংবাদ দেখে, পত্রিকা পড়ে নিজে থেকেই সিদ্ধান্ত নেয় তার জমানো সমস্ত টাকা বিতরন করে দিবে। সে তার সিদ্ধান্ত বাবা মাকে জানায় এবং তার সিদ্ধান্তে অনঢ় থাকে। লুব্ধকের সিদ্ধান্ত মোতাবেক তার বিভিন্ন সময়ে পাওয়া উপহার, যেমন: ঈদের সালামি, জন্মদিনের উপহার, বাবার বন্ধু, আত্মীয় স্বজনদের উপহার এবং সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সাংসদের উপহার হিসাবে পাওয়া টাকা অসহায়দের মাঝে বিতরন করে দেয়। তার জমানো টাকার সাথে তার বাবাও সামিল হয়ে এলাকার অসহায়দের জন্য এগিয়ে আসেন।লুব্ধকের শর্ত ছিলো যাদের মাঝে টাকা বিতরন করা হবে তাদের কোনো ছবি তুলে প্রচার করা যাবে না। তার নানাবাড়িতে টাকা বিতরনে লালমনিরহাটের মিশন মোড়ে ও খোর্দ সাপটানা রোডে তার নানি মোছা. রুবি রহমান এবং ভেলাবাড়িতে জাহিনের মামা আসাদুল হক সহযোগিতা করেন।

দাদা বাড়ি বকশীগঞ্জে লুব্ধকের জেঠা মাইনুল ইসলাম লাভলু এবং ডা. জামিল উদ্দিন জিন্নাহ সহযোগিতা করেন। দাদা বাড়ির নিকট আত্নীয় স্বজন ও প্রতিবেশীদের মাঝে তালিকা করে বাড়ি বাড়ি গিয়ে নগদ টাকা বিতরন করা হয়।

লুব্ধকের জেঠা মাইনুল ইসলাম লাভলু বলেন, “লুব্ধকের এমন কাজে আমরা যারপরনাই অবাক এবং খুশি হয়েছি। আমরা তার জন্য দোয়া করি এবং সবার কাছে দোয়া চাই।”

ছোট্ট লুব্ধকের এই মহানুভবতাকে মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বলা যায়। তার কাছ থেকে সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের অনেক কিছু শেখার আছে। আমরা সবাই যদি লুব্ধকের মতো কাজ করি তাহলে সমাজ পরিবর্তন হতে সময় লাগবে না। বঙ্গবন্ধু এমন সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখতেন, যেখানে সবাই লুব্ধকের মতো চিন্তা করবে।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102