বকশীগঞ্জে দুই স্বাস্থ্যকর্মীর শরীরে অদ্ভুদ করোনা

স্টাফ রিপোার্টারঃ শরীরে কোন জ্বর নেই, নেই শ্বাসকষ্ট, হাচি ও কাশির বলাই নেই কিন্তু তারা অদ্ভুদ করোনায় আক্রান্ত। গত ৯ তারিখে করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) পরীক্ষার পর এর ফলাফল পজেটিভ আসে বকশীগঞ্জ হাসপাতালের এক সিনিয়র স্টাফ নার্সের।
পরে তিনি মোবাইলে সাংবাদিকদের জানান, তার কোন জ্বর নেই, শ্বাসকষ্ট নেই, নেই হাঁচি-কাশি। কিন্তু তারপরেও করোনা পরীক্ষায় ফলাফল পজেটিভ এসেছে। ঠিক ২দিন পর একই অবস্থা একই হাসপাতালে বাবুর্চির। তারও করোনা টেষ্টে ফলাফলে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। তারও শরীরে জ্বর, শ্বাসকষ্ট, হাচি-কাশি কিছুই ছিল না।
কোন ধরনের লক্ষণ না থাকার পরেও তাদের শরীরে করোনা উপস্থিতি পাওয়া যাওয়াতে পুরো বকশীগঞ্জ উপজেলা আজ আতঙ্কিত। এ ঘটনার পুরো স্বাস্থ্যসেবা ভেঙ্গে পড়ে। সীমিত করা হয় স্বাস্থ্য সেবা। এখনো করোনা আতংকে সাধারন মানুষ বকশীগঞ্জ হাসপাতালে যেতে ভয় পাচ্ছে।
যদিও পরদিন হাসপাতালের আর ১৭ জন স্বাস্থকর্মীর শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে ময়মনসিংহ পাঠানো হয়। ফলাফলে তাদের শরীরে করোনার কোন লক্ষণ পাওয়া যায়নি। স্বাস্তি ফিরে আসে বকশীগঞ্জে।
তবে আক্রান্ত দুই স্বাস্থ্য কর্মীকে জামালপুর শেখ হাসিনা আইসোলিশন কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। তাদের বিষয়ে সব সময় খোজ খবর নিচ্ছে বকশীগঞ্জ স্বাস্থ্য বিভাগ।
এ বিষয়ে বকশীগঞ্জ স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ প্রতাপ নন্দী জানান, আক্রান্তরা অনেকটাই সুস্থ্য। তারা খুব কম সময়ের মধ্যেই করোনা মুক্ত হয়ে কর্মস্থলে যোগ দিবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

     এই বিভাগের আরো খবর
ব্রেকিং নিউজঃ