রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০১:০৬ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English

বকশীগঞ্জে স্বেচ্ছা শ্রমে রাস্তা নির্মাণ, নিজেই মাটি কাটলেন ইউএনও

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৬৬০ জন সংবাদটি পড়ছেন

স্টাফ রিপোর্টারঃ জামালপুরঃ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তা সংস্কারে স্থানীয় স্বেচ্ছা শ্রমে নিযুক্ত শ্রমিকদের সাথে নিজেই মাটি কাটলেন বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আ.স. জমশেদ খোন্দকার।
শনিবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর ইউনিয়নে পাটা ধোয়া খালে তিনি শ্রমিকদের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে তিনি মাটি কাটেন।
গত বছর বন্যায় মেরুরচর ইউনিয়নে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার রাস্তা বন্যায় চলাচলে অনুপোযুগি হয়ে পরেছে। এসব রাস্তা সংস্কারের স্থানীয় ভাবে বরাদ্দ না থাকায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, স্বপ্ন প্রকল্পের শ্রমিক, ৪০ দিনের কর্মসুচীর শ্রমিক, স্থানীয় স্কুলের শিক্ষার্থী, গ্রামবাসী স্বতর্স্ফুতভাবে এই মাটি কাটায় অংশ নেয়।
এই বিষয়ে স্থানীয় মেরুরচর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম জেহাদ জানান, বন্যায় এই ইউনিয়নে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার রাস্তা নষ্ট হয়ে চলাচলের অনুপোযুগি হয়ে পড়ে আছে। যেটুকো বরাদ্দ পাওয়া গেছে তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। এই বরাদ্দ দিয়ে এসব রাস্তা সংস্কার করা কোনভাবেই সম্ভব নয়। তাই স্থানীয় মানুষ স্বেচ্ছা শ্রমের মাধ্যমে নিজেরাই এসব রাস্তা সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মাহাবুব খান জানান, আমরা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ তালিকা করে পাঠিয়েছি। তবে এখন পর্যন্ত পর্যপ্ত বরাদ্দ পাওয়া যায়নি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আ.স.ম জমশেদ খোন্দকার জানান, কোন কাজই ছোট নয়। আসছে এসএসসি পরীক্ষা। শিক্ষার্থীদের যাতায়তের জন্য এই রাস্তাটি অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন। এদিকে রাস্তা সংস্কারের বরাদ্দ না থাকায় সরকারীভাবে সংস্কার করাও সম্ভব হচ্ছে না। তাই গ্রামবাসী, বিভিন্ন প্রকল্পের শ্রমিক ও স্থানীয় স্কুলের শিক্ষার্থীরা এই রাস্তাটি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে। আমরা সাথে থাকে সহযোগিতা করছি।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102