বাবুল চিশতি শ্যোন এরেস্ট

স্টাফ রিপোর্টারঃ অর্থ আত্মসাতের মামলায় ফারমার্স ব‌্যাংকের নিরীক্ষা কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চিশতীকে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

ফারমার্স ব্যাংক থেকে (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) জালিয়াতির মাধ্যমে ১১৪ কোটি ৩৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে বাবুল চিশতির বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশ শুনানি শেষে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করেন। ফলে বাবুল চিশতি এ মামলায় শ্যোন এরেস্ট হবেন।

গত ১২ জানুয়ারি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন আসামি বাবুল চিশতীকে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন করেন।

গত বছর ১৭ অক্টোবর সংস্থার ঢাকা-১ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে বাবুল চিশতীসহ আটজনকে আসামি করে মামলা করেন দুদকের উপ-পরিচালক সামছুল আলম।

মামলার অপর আসামিরা হলেন-বাবুল চিশতীর তার ভাই মাজেদুল হক ওরফে শামীম চিশতী, ব্যাংকটির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এ কে এম এম শামীম, শাবাবা অ্যাপারেলসের মালিক মো. আবদুল ওয়াদুদ ওরফে কামরুল, এডিএম ডাইং অ্যান্ড ওয়াশিংয়ের মালিক রাশেদ আলী, তনুজ করপোরেশনের মালিক মো. মেফতাহ ফেরদৌস, মোহাম্মদ আলী ট্রান্সপোর্টের মালিক মো. গোলাম সারোয়ার ও ক্যানাম গ্রোডাক্টসের মালিক ইসমাইল হাওলাদার।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, মামলার সাত আসামি এখনো পলাতক রয়েছেন। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে বলে জানান তদন্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন।

এজাহারে বলা হয়, আসামিরা ক্ষমতার অপব্যবহার, দুর্নীতি ও অনিয়মের মাধ্যমে ব্যাংক থেকে ৮৮ কোটি ১৬ লাখ ১৭ হাজার টাকা তুলে নিয়ে আত্মসাৎ ও পাচার করেছেন। সুদসহ ওই টাকা বর্তমানে দাঁড়িয়েছে ১১৪ কোটি ৩৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা। তাই আসামিদের বিরুদ্ধে ওই পরিমাণ অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

     এই বিভাগের আরো খবর

Site Statistics

  • Users online: 5 
  • Visitors today : 348
  • Page views today : 438
  • Total visitors : 170,827
  • Total page view: 231,416
ব্রেকিং নিউজঃ