বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০২:৪৬ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জে যুবদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ধানের শীষের সাথে মিশে আছে যার জীবন, সেইতো আব্দুল্লাহ আল সাফি লিপন বকশীগঞ্জে রাতে চালু থাকা ড্রেজারে বালু উত্তোলন বন্ধ করলেন ওসি বকশীগঞ্জে পুজা মন্ডব প‌রিদর্শন ও নগদ অর্থ সহায়তা দিলেন মেয়র নজরুল ইসলাম সওদাগর বকশীগঞ্জে মধ্যবয়সী নারী ধর্ষন, আটক-১ বকশীগঞ্জে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার বকশীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটি বাতিল! দুই মামলায় রাশেদ চিশতির জামিন দেওয়ানগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরের ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানালেন অধ্যাপক সুরুজ্জামান বকশীগঞ্জে পৌর আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের সংর্ঘষ ।। আহত অর্ধশতাধিক

টান টান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে কামালপুর মুক্ত দিবস পালিত

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১০৬৫ জন সংবাদটি পড়ছেন
কামালপুর হাই স্কুলে মাঠে আলোচনা সভায় বীর মুক্তিযোদ্ধারা

স্টাফ রিপোর্টারঃ টান টান উত্তেজনা ও ক্ষোভের মধ্যে দিয়ে জামালপুরের বকশীগঞ্জে কামালপুর মুক্ত দিবস পালিত হয়েছে।
সহযোগি মুক্তিযোদ্ধাদের ব্যানারে কিছু সাধারন মানুষ এ দিবস পালন করতে চাইলে মুক্তিযোদ্ধা ও কথিত সহযোগি মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সংঘাত এড়াতে কথিত সহযোগি মুক্তিযোদ্ধারা কর্মসুচী পালন না করলেও বাট্টাজোড় নালার মোড় এলাকায় প্রায় ৫ শতাধিক কথিত সহযোগি মুক্তিযোদ্ধারা জামায়েত হতে থাকে।
সংঘাত এড়াতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ দিবস পালন করার নিষেধ করা হলেও দলে দলে সহযোগি মুক্তিযোদ্ধারা নালার মোড় এলাকায় জমায়েত হয়। এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধারা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে।
অপরদিকে মুক্তিযোদ্ধারা কামালপুর হাই স্কুল মাঠে তাদের নির্ধারিত কর্মসুচীর পালন করে। এ সময় বক্তরা জামুকার ভুমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন মুক্তিযোদ্ধারা।
তারা সুস্পষ্টভাবে কথিত সহযোগি মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিহত করার ঘোষনা দিয়ে বলেন, যদি এদের কার্যক্রম বন্ধ না করা হয়ে তবে বৃহত্তর আন্দোলনের মাধ্যমের এদের প্রতিহত করা হবে।

কামালপুর মুক্ত দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন কামালপুর ইউনিয়ন কমান্ডের কমান্ডার মজিবুর রহমান। এতে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের কমান্ডার সুজাত উদ্দিন সুজা।
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সাধারন সম্পাদক মনিরুরজ্জামান মনির এর উপস্থাপনায় এছাড়া বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা বশির উদ্দিন বীর প্রতীক, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আফসার আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম রেজা প্রমুখ।
প্রসঙ্গত, ১৯৭১ সালে এই দিনে ১৬২জন পাক হানাদার বাহিনী মুক্তিবাহিনীর নিকট আত্মসমর্পণ করলে কামালপুর স্বাধীন হয়। আনুষ্ঠানিকভাবে কামালপুরেই প্রথম পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করে।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102