ইসলামপুরে এতিমদের ৩২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

ইসলামপুর (জামালপুর) সংবাদদাতা: জামালপুরের ইসলামপুরে তিন এতিম নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় অসহায় আবেদা বেগম। সৌদীতে নিহত স্বামীর কোম্পানীর পাঠানো ৩২ লাখ টাকাও আত্মসাত করেছে প্রতারকরা। টাকা চাইতে গেলে তিন এতিম ও তাকে প্রাণাশের হুমকি দিচ্ছে আত্মসাতকারী জহুরুল ও আমিনুর। এতে আবেদা বেগম এতিম সন্তানদের নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় মধ্যে রয়েছে।
জানা যায়, ইসলামপুরের নোয়ারপড়া ইউনিয়নের তারাতাপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে আব্দুল কাদের শ্রমিক হিসাবে সৌদী আরব গিয়ে ২০০৭ নিহত হয়। পরে নিহতের পক্ষে জনশক্তি রপ্তানি ব্যূরোর মাধ্যমে জরিমান চেয়ে মামলা করা হলে সৌদী কোম্পানী পিতা নুরুল ইসলামে ব্যাংক হিসাবে সাড়ে মা-বাবার জন্য ১৮ লাখ ও স্ত্রী জাবেদা বেগমের একাউন্টে তার ও তিন এতিমের জন্য ৩২ লাখ টাকা পাঠায়। এ সুযোগে প্রতিবেশী মবিবুর আকন্দের ছেলে জহুরুল ও আফাজ উদ্দিনের ছেলে আমিনুর সহজসরল জাবেদাকে পটিয়ে তার চেক বইয়ের পাতায় পাতায় টিপ নিয়ে জনতা ব্যাংক মেলান্দহের মামহমুদপুর বাজার শাখা থেকে ৩২ লাখ টাকা উত্তোলণ করে আত্মসাত করেছে। অসহায় আবেদা এখন টাকা চাইতে গেলে তিন এতিম সন্তান ও তাকে ও খুন করে যমুনা নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা।
মাইজবাড়ী দাখিল মাদরাসার সুপার আব্দুল হালিম বলেন, এ ঘটনায় একধিক শালিশ-বৈঠক হয়েছে। কিন্তু শালিশের দিন পালিয়ে যায় প্রতারকরা।
ব্যাংক ম্যানেজার মোফাজ্জল হোসেন প্রথমে জাবেদাকে প্রায়োজনীয় তথ্য দিতে অস্বীকার করলেও সাংবাদিকদের উপস্থিতি বুঝে তথ্য দিতে বাধ্য হন। তিনি বলেন, নিয়মানুযায়ী টাকা উত্তোলণ হয়েছে। ব্যাংকের কোন কিছু করার নেই।

নিউজটি শেয়ার করুন..

     এই বিভাগের আরো খবর
ব্রেকিং নিউজঃ