মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:২১ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জ প্রেসক্লাবে অতিরিক্ত সচিব শাওলী সুমনের রূহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল বক‌শীগঞ্জ উপ‌জেলা বিএন‌পি`র আহ্বায়ক ক‌মি‌টির প‌রি‌চি‌তি সভা বকশীগঞ্জ ২ হাজার ভারতীয় জাল রুপিসহ আটক ৭ বকশীগঞ্জে শিশু হত্যা, পিতার মৃত্যুদণ্ড বকশীগঞ্জ বিএনপির সংবাদ সম্মেলন, কমিটির আত্ম প্রকাশ শিক্ষা ও গবেষণায় এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকারে বশেফমুবিপ্রবি’র বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন দলকে সুসংগঠিত করাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্চ… মানিক সওদাগর আরব সাগরে ভেঙে পড়লো ভারতীয় যুদ্ধবিমান, পাইলটের মৃত্যু বকশীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কমিটি॥ মানিক-আহ্বায়ক, মতিন- সদস্য সচিব বকশীগঞ্জ পৌর বিএনপি ॥ প্রিন্স-আহ্বায়ক, গামা-সদস্য সচিব

ট্রেনের টিকিট সোনার হরিণ!

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৯
  • ৪২৬ জন সংবাদটি পড়ছেন

স্টাফ রিপোর্টারঃ ট্রেনের টিকিট যেন নয়, এটি একটি সোনার হরিণ। ৫দিন যাবত ঘুরে একটি টিকিটও পায়নি- এমনটাই জানালেন ঢাকা গামী যাত্রী কাউছার আহাম্মেদ।
পরে জামালপুরের ইসলামপুর রেলওয়ে স্টেশনে গিয়ে সরজমিনে কথার শতভাগই মিল পাওয়া যায়।

এদিকে ঈদুল আযহা ৯ দিন পার হলেও টিকিটের মূল্য দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ রেলের দুটি আন্তঃনগর, একটি বেসরকারি (কমিউটার) ও সড়ক পথে কয়েকটি বাস চলাচল করছে। ইসলামপুরে রেলস্টেশন কাউন্টারে ২৪ তারিখের আগ পর্যন্ত কোনো টিকিট না থাকলেও ১ হাজার টাকায় মিলছে যে কোন দিনের টিকিট। তবে কালোবাজারিরা এবার তাদের ব্যবসার ধরন পরিবর্তণও করেছেন, এখন আর স্টেশনের প্লাটর্ফমে টিকিট হাতে দাড়িয়ে থাকেন না। রফদাফায় মিলে গেলে বাড়ী অথবা অন্য কোন জায়গা থেকে টিকিট এনে দেন।

টিকিটের চাহিদা বুঝে কালোবাজারিরা এসির ৪২৬ টাকার টিকিট ১৫০০, ২২৫ টাকার চেয়ার টিকিট ১০০০ টাকা আদায় করে নিচ্ছেন যাত্রীদের নিকট থেকে।
রেলওয়ে স্টেশন মাষ্টার সুত্রে জানা যায়, আন্তঃনগর তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনের ৯৭টি আসন রয়েছে। এর মধ্যে কেবিন-সাতটি, এসি চেয়ার ৩০টি, চেয়ার ৬০টি, ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস ট্রেনের ১৪০টি আসনের মধ্যে চেয়ার ১০টি, শোভন ১৩০টি আসন রয়েছে। এছাড়া বেসরকারি কমিউটার ট্রেনের ঢাকা-৬০টি ও ময়মনসিংহের জন্য ১০টি আসন রয়েছে।

এসব টিকিট আন্তঃনগর ট্রেনের ৫০ শতাংশ আসন অনলাইনে ও ৫০ শতাংশ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীদের তাৎক্ষনিকভাবে দেওয়ার কথা থাকলেও এগুলো কয়েকদিন আগেই শেষ হয়ে যায়।

সরজমিনে দেখা যায়, টিকেট কালোবাজারীরা আগে থেকেই তাদের মনোনীত ভাড়াটিয়া লোক প্রতিদিন লাইনে দাড়িয়ে টিকেট সংগ্রহ করে। পরবর্তীতে কালোবাজারীদের হাতে টিকেট তুলে দেন। প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে কালোবাজারী টিকেট বিক্রির ধরনও পাল্টিয়েছে। এখন মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করে বিভিন্ন স্পটে গিয়ে টিকেট পৌছে দেয় তারা।

ইসলামপুরে স্টেশনের ঢাকাগামী যাত্রী শিরিনা, রোকেয়া, ফারজানা, রুবেল, কমল, জসিম, শামিম প্রায় একই ধরনের কথা বলেন।
তারা বলেন, কোন দেশে বাস করি। সরকারি কাউন্টারে টিকিট নেই।
কালোবাজারিদের কাছ থেকে ৫ গুণ বেশি দামে নিতে হয়।

তারা আরও বলেন, কি করব পরিবার-পরিজন নিয়ে কর্মস্থলে যেতে তো হবেই। তাই বাধ্য হয়ে কালোবাজারিদের দ্বারস্থ হতে হচ্ছে।

ইসলামপুর রেলস্টেশনে গিয়ে স্টেশন মাস্টার মিজানুর রহমানএ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজী হননি।

অপর সড়ক পথে রাজিব, এসকে জননী, রংধনু ও শেরপুর ট্রাভেলসহ প্রায় ২৫টি বাস চলাচল করছে। এসব বাস কাউন্টারে ৩০০ টাকার টিকিট ৭০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের। সিএনজির ভাড়া ইসলামপুর-জামালপুর রোডে ৬০ টাকার স্থলে ১০০টাকা মাথাপিছু ভাড়া নেওয়া হচ্ছে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করেছে।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান জানান,- মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে আমি ব্যবস্থা নিব।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102