শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ১১:২৪ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English

জামালপুরে নৌকা ডুবি, উদ্ধার ২২, নারী ও শিশুসহ নিখোঁজ-৬

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট, ২০১৯
  • ৩৭২ জন সংবাদটি পড়ছেন

স্টাফ রিপোর্টারঃ জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে ভিজিএফ এর চাল নিয়ে ফেরার পথে যমুনা নদীতে ২৮ জন যাত্রী নিয়ে নৌকাডুবির ঘটনায় বুধবার রাতে ১৬ জনকে বৃহস্পতিবার সকালে ৬ জনকে প্রজাপতির চর থেকে উদ্ধার করেছে। জীবিত উদ্ধারের সংখ্যা দাঁড়ালো ২২। এখনো শিশু ও নারীসহ ৬ জন নিখোঁজ রয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ফুটানি বাজার ঘাট থেকে ২৮ জন যাত্রী নিয়ে একই ইউনিয়নের যমুনার পশ্চিম পাড়ের টিনেরচর গ্রামে যাচ্ছিল। যাত্রীরা সবাই ওই গ্রামের বাসিন্দা। তারা সবাই গত বুধবার বিকেলে চুকাইবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ভিজিএফ চাল উত্তোলন করে একই নৌকায় বাড়িতে ফিরছিলেন। ফুটানি বাজার ঘাট থেকে যুমনা নদী পথে প্রায় সাত কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে টিনেরচর গ্রামে যেতে হয়। নদীর মাঝামাঝি ভেড়াখাওয়া মাথা নামক স্থানে নৌকাটি আকস্মিক ডুবে যায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. আবুল কালাম  জানান, ডুবে যাওয়া নৌকার মাঝি মো. মনোয়ার হোসেনসহ অন্তত ২৮ জন যাত্রী ছিল। মাঝ নদীতে নৌকাডুবির বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয়রা বেশ কয়েকটি নৌকা নিয়ে সেখানে গিয়ে যাত্রীদের উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। পরে তাদের সাথে যুক্ত হয় জামালপুর ও দেওয়ানগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা।

বুধবার রাত ১টায় বৈরী আবহাওয়ায় ফায়ার সাভির্সের ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান স্থগিত করলেও সকাল থেকেই উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে। নিখোঁজ ৬ জনের সন্ধানে উদ্ধার অভিযান চলছে।

জামালপুর ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন অফিসার নুর উদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, সকালে দেওয়ানগঞ্জের ফুটানি বাজার ঘাট থেকে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান শুরু করে। নৌকা ডুবির ঘটনাস্থল চিনার চর থেকে থেকে ১০ কিলোমিটার দুরে প্রজাপতির চরের বিভিন্নস্থানে ৬ জনকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃতরা নৌকাডুবির পর যমুনা নদীতে সাঁতরিয়ে ও ভাসতে ভাসতে পাড়ে উঠে। চরের বিভিন্নস্থানে রাতে অবস্থান করে।

তিনি আরও জানান, ফায়ার সার্ভিসের পাশাপাশি পুলিশ ও স্থানীয়রা ইঞ্জিন চালিত নৌকা নিয়ে নিখোঁজ ৬ জনের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে। বড় দুটি নৌকা নিয়ে যমুনার মাঝপথ, দুর্ঘটনাস্থল ও আশপাশে উদ্ধার অভিযান চালানো হচ্ছে। তবে বিশাল এরিয়া, বৈরী আবহাওয়া ও যমুনায় তীব্র স্রোতে থাকায় ডুবুরিরা সঠিকভাবে উদ্ধার অভিযানে চালাতে পারছে না।

দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা জানান, বুধবার চুকাইবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে চর হালকা হাওরাবাড়ীর দু:স্থ মানুষজন ভিজিএফ এর চাল উত্তোলন করে বুধবার সন্ধা সাড়ে ৭টায় ফুটানি বাজার ঘাট থেকে নৌকাযোগে চর হালকা হাওড়াবাড়ীর ফেরার পথে ২৮ যাত্রী নিয়ে নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে। সর্বশেষ ৫জনকে জীবিত উদ্ধারে স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ,ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন একযোগে কাজ করে যাচ্ছে। নিখোঁজদের খোঁজে না পাওয়া পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান চলবে।

 

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102