‘‘আলোকিত জামালপুর’’ পেইজটির মাধ্যমে জামালপুরকে তুলে ধরছে রাশেদুল

বিশেষ প্রতিনিধিঃ জামালপুর জেলা নিয়ে ফেসবুকে অনেক আইডি, গ্রুপ, পেইজ, ব্লগ রয়েছে। আলোকিত জামালপুর একটি আন-অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ।

আলোকিত জামালপুর পেইজটিতে জামালপুর জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, গুনিজন, বিখ্যাত ব্যাক্তি, খ্যাতিমান, স্বরনীয় ও বরনীয় বেশকিছু মানুষের ফটোগ্রাফ, জীবনী এবং আঞ্চলিক, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে তাদের অবদান তথ্যসূত্রসহ তুলেধরার চেষ্টা করা হয়েছে।

আলোকিত জামালপুর পেইজটির সকল তথ্য ও ছবিসমূহ ইন্টারনেট ব্রাউজিং, বিভিন্ন পত্রপত্রিকা, বই, ম্যাগাজিন, অনেকের ব্যক্তিগত সংগ্রহ, ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপ, পেইজ, আইডি এবং বিভিন্ন সূত্র হতে সংগৃহীত। নিতান্ত সখের বশবতী হয়ে কাজের ফাঁকে, অবসরে এডমিন একাই পেইজটির সকল তথ্য সংগ্রহ, সম্পাদনা, ছবি ডিজাইন ও পেইজটি পরিচালনা করেন।

আলোকিত জামালপুর পেইজটির এডমিন রাশেদুল হাসান। এডমিনের বাসা জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায়। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমবিএ সম্পন্ন করে বর্তমানে বাংলাদেশের কম্পট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেল এর নিয়ন্ত্রনাধীন বাণিজ্যিক অডিট অধিদপ্তরে অডিটর পদে কর্মরত আছেন।

আলোকিত জামালপুর সম্পূর্ন অরাজনৈতিক এবং ধর্মনিরেপেক্ষ একটি পেইজ। পেইজটি কোন ব্যাক্তি, সংগঠন, দল, গ্রুপ, ধর্ম বা মতাদর্শের প্রতিদ্বন্দ্বী বা প্রতিপক্ষ নয়। পেইজটি দেশে বা দেশের বাহিরে অবস্থানকারী সকল ধর্ম, মত, পেশা ও বয়সের জামালপুরবাসী সবার জন্য উন্মুক্ত।

আলোকিত জামালপুর পেইজটির কার্যক্রম সবেমাত্র শুরু করা হয়েছে এবং রয়েছে অনেক সীমাবদ্ধতা। পেইজটি নতুন,  সময়ের পরিক্রমায় পেইজ এবং পোস্টসমূহ উন্নত এবং মানসম্মত হতে যাচ্ছে।

“আলোকিত জামালপুর” পেইজটির উন্নয়নে তথ্য, ছবি, মতামত, মন্তব্য, দিকনির্দেশনা ও পরামর্শ দিয়ে এবং পেইজটির প্রচারে লাইক, শেয়ার ও কমেন্টস করে জামালপুর জেলার সংস্কৃতি, ইতিহাস, ঐতিহ্য ও গুনিজনদের স্মৃতি সংরক্ষনে সহায়তা করবেন প্রত্যাশা করেছেন পেইজটির এডমিন রাশেদুল হাসান।

নিতান্ত শখের বশে করা এই ফেসবুক পেইজটি বর্তমানে অত্যন্ত জনপ্রিয় ও তথ্য ভান্ডার হিসাবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

পেইজটির লিংক- https://m.facebook.com/alokitojamalpurbd

নিউজটি শেয়ার করুন..

     এই বিভাগের আরো খবর
ব্রেকিং নিউজঃ