মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:১৪ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জে মডেল মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন যে কারণে স্থগিত হল বকশীগঞ্জে আ’লীগের বর্ধিতসভা জামালপুর পৌরসভা নির্বাচনঃ প্রার্থী হিসাবে অধ্যাপক সুরুজ্জামানের পরিচিতি ভাষা সৈনিক এডভোকেট আশরাফ হোসেনের ইন্তেকাল বকশীগঞ্জে হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা না থাকায় দুর্ভোগ চরমে বকশীগঞ্জে পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি রুখতে বাজার মনিটরিংয়ে ইউএনও জনগনকে থানায় যেতে হবে না, পুলিশ যাবে জনগনের কাছে.. সীমা রানী সরকার জামালপুর জেলা আ’লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা বকশীগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাঙচুর, জেলা আ’লীগের ৩ সদস্যের তদন্ত টিম গঠনের সিদ্ধান্ত নুর মোহাম্মদের পদত্যাগ পত্র গ্রহন করে নাই জামালপুর জেলা আওয়ামীলীগ

শ্রীবরদীর নির্বাচন বির্তকে ইসলামপুরে আ’লীগ-বিএনপি’র ১০ নেতা আহত!

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২২ মার্চ, ২০১৯
  • ৪৫৭ জন সংবাদটি পড়ছেন

এম. কে. দোলন বিশ্বাস, জামালপুর থেকে : শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাচন নিয়ে বির্তকে জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় দু’পক্ষের সংর্ঘষ হয়েছে। এতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বৃহস্পতিবার (২১মার্চ) দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্ষণ করেছেন ইসলামপুর থানার ওসি মো. আসলাম হোসেন।

সরেজমিনে জানা যায়, বুধবার বিকালে ইসলামপুর উপজেলার চরপুঁটিমারী ইউনিয়নের বেনুয়ারচর বেপারী পাড়ায় সংর্ঘষের এ ঘটনাটি ঘটে।
ঘটনার দিন বিকালে স্থানীয় মিরছাপ আলীর মনহারী দোকানের সামনে শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাচন নিয়ে জনৈক এক ব্যক্তি নৌকা প্রতীকের জোয়ার উঠেছে মর্মে দাবি করলে উপস্থিত বিএনপি সমর্থকরা প্রতিবাদ করে জানায় নৌকা ডুবেছে। এ নিয়ে বির্তকের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে স্থানীয় মৃত আব্দুস ছামাদের ছেলে নেদা মিয়ার সাথে মজিবর মিয়ার ছেলে মুকুল, মিস্টার, নুরনবী মেম্বারের ছেলে টমাস এর মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। মহুর্তের মধ্যে সংঘর্ষের রূপ নেয়। নেদা মিয়ার বাড়িতে হামলা চালিয়ে কয়েকটি টিনসেড ঘরের বেড়া ভাংচুর করা হয়। এ সময় নারী-পুরুষসহ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়।
আহতরা হলো- বিএনপি নেতা লালমিয়া মাস্টার (৭০), তার মেয়ে শীলা (২৫), শিরিন (৩৫), আব্দুর রহিমের স্ত্রী ফাহি বেগম (৪৫), আব্দাস আকন্দের ছেলে কোরবান আলী (২২), নুরনবী আকন্দের ছেলে টমাস আকন্দ (৩৫)। এদের মধ্যে বিএনপি নেতা লালমিয়া মাস্টারের অবস্থা গুরুত্বও হওয়ায় তাকে ভর্তি করা হয়েছে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে। বাকিদেও বিভিন্ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
অপরদিকে আহতরা আওয়ামী সমর্থকরা হলো- নেহার আলীর ছেলে ইয়াসিন (৪০), আব্দুস ছামাদ মন্ডলের ছেলে আলামি (৩০), নেদার মন্ডলের মেয়ে আংগুরী বেগম (২০)। এদের মধ্যে গুরুত্বর আশঙ্কা অবস্থায় আংগুরী বেগমকে ভর্তি করা হয়েছে শেরপুর জেনারেল হাসপাতালে।
নেদার মন্ডলের বড় ভাই বেলাল মন্ডলের স্ত্রী মালেছা বেগম জানান, আসন্ন শ্রীবরদী উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে জয়-পরাজয় নিয়ে স্থানীয় বিএনপি ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এক পর্যায়ে বিএনপি সমর্থকরা হামলা চালিয়ে আমাদের বাড়ি ঘর ভাংচুর করে। বিএনপি নেতা লালমিয়া মাস্টার দাবি করেন, তাকে অযথা মারধোর করা হয়েছে।
ইসলামপুর থানার ওসি মো. আসলাম হোসেন জানান, আমি নিজে একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্ষণ করেছি। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত চলছে।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2019 LatestNews
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102