মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:১৩ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জ প্রেসক্লাবে অতিরিক্ত সচিব শাওলী সুমনের রূহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল বক‌শীগঞ্জ উপ‌জেলা বিএন‌পি`র আহ্বায়ক ক‌মি‌টির প‌রি‌চি‌তি সভা বকশীগঞ্জ ২ হাজার ভারতীয় জাল রুপিসহ আটক ৭ বকশীগঞ্জে শিশু হত্যা, পিতার মৃত্যুদণ্ড বকশীগঞ্জ বিএনপির সংবাদ সম্মেলন, কমিটির আত্ম প্রকাশ শিক্ষা ও গবেষণায় এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকারে বশেফমুবিপ্রবি’র বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন দলকে সুসংগঠিত করাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্চ… মানিক সওদাগর আরব সাগরে ভেঙে পড়লো ভারতীয় যুদ্ধবিমান, পাইলটের মৃত্যু বকশীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কমিটি॥ মানিক-আহ্বায়ক, মতিন- সদস্য সচিব বকশীগঞ্জ পৌর বিএনপি ॥ প্রিন্স-আহ্বায়ক, গামা-সদস্য সচিব

বকশীগঞ্জে ৩ ভুয়া শিক্ষকের জেল, কেন্দ্র সচিবের ১ লাখ টাকা জরিমানা

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১ নভেম্বর, ২০১৮
  • ৮৫৩ জন সংবাদটি পড়ছেন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ জামালপুরের বকশীগঞ্জে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় তিন ভুয়া শিক্ষক দায়িত্ব করায় তাদের এক মাস করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া দায়িত্বে অবহেলার কারণে কেন্দ্র সচিবকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০১ নভেম্বর) বিকেলে বকশীগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রথম শ্রেণির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দেওয়ান মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম এ দণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত তিন ভুয়া শিক্ষক হলেন- কামালপুর ইউনিয়য়নের টাঙ্গারীপাড়া গ্রামের মৃত লুৎফর রহমানের ছেলে মো. মাহাবুবুর রহমান, বাট্টাজোর ইউনিয়নের পলাশতলা গ্রামের মৃত আব্দুল কাশেমের ছেলে মো. আলমগীর হোসেন ও মেরুরচর ইউনিয়নের আনোয়ার হোসেনের ছেলে মো. হিটলার মিয়া।


এছাড়া কেন্দ্র সচিব রফিকুল ইসলাম চন্দ্রাবাজ রশিদা বেগম স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ। তিনি বাট্টাজোড় ইউনিয়নের চন্দ্রাবাজ গ্রামের এনমুল হক সরকারের ছেলে।


ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দেওয়ান মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম  জানান, বৃহস্পতিবার পরীক্ষা চলাকালে কারাদণ্ডপ্রাপ্ত তিন ব্যক্তি বকশীগঞ্জ উপজেলার হাসিনা গাজী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরিদর্শকের দায়িত্ব পালন করছিলেন। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা ইঞ্জিনিয়ার অন্তর ইউনুছ রেছেনা নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বলে পরিচয় দেন। পরে এই নামে কোন প্রতিষ্ঠান না থাকায় তাদের আটক করে প্রত্যেককে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এছাড়া দায়িত্ব অবহেলার কারণে পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিব মো. রফিকুল ইসলামকে এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ২২ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। পরে এক লাখ টাকা পরিশোধ করে তিনি মুক্তি পান।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102