মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৪:৩২ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জ প্রেসক্লাবে অতিরিক্ত সচিব শাওলী সুমনের রূহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল বক‌শীগঞ্জ উপ‌জেলা বিএন‌পি`র আহ্বায়ক ক‌মি‌টির প‌রি‌চি‌তি সভা বকশীগঞ্জ ২ হাজার ভারতীয় জাল রুপিসহ আটক ৭ বকশীগঞ্জে শিশু হত্যা, পিতার মৃত্যুদণ্ড বকশীগঞ্জ বিএনপির সংবাদ সম্মেলন, কমিটির আত্ম প্রকাশ শিক্ষা ও গবেষণায় এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকারে বশেফমুবিপ্রবি’র বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন দলকে সুসংগঠিত করাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্চ… মানিক সওদাগর আরব সাগরে ভেঙে পড়লো ভারতীয় যুদ্ধবিমান, পাইলটের মৃত্যু বকশীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কমিটি॥ মানিক-আহ্বায়ক, মতিন- সদস্য সচিব বকশীগঞ্জ পৌর বিএনপি ॥ প্রিন্স-আহ্বায়ক, গামা-সদস্য সচিব

জামালপুর-০১, ভোটের হিসাবে মাঠের রাজা নুর মোহাম্মদই

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৮
  • ১২০০ জন সংবাদটি পড়ছেন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ  জামালপুর-১ (দেওয়ানগঞ্জ-বকশীগঞ্জ) নির্বাচনী ভোটের হিসাবে মাঠের রাজা বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুর মোহাম্মদই।


জামালপুর-০১ আসনের মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লক্ষ ২ হাজার ১১৫জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ৪৮ হাজার ২৪৮ আর মহিলা ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ৫৩ হাজার ৮৬৭।
সর্বশেষ ভোটার তালিকানুযায়ী বকশীগঞ্জ উপজেলার ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ৫৭ হাজার ৫৩৯জন।

গণ সংযোগে ভোট প্রার্থনা করছেন নুর মোহাম্মদ

এই আসনে আওয়ামীলীগের মুল প্রার্থীর সংখ্যা ৩ জন। এরা হচ্ছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুর মোহাম্মদ, বর্তমান এমপি আবুল কালাম আজাদ ও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ। এই তিনজনের মধ্যে যে কেউ দলীয় প্রতীক নৌকা নিয়ে ভোটের যুদ্ধে অংশ নিবেন।
যদিও পোষ্টার ও ব্যানারে বকশীগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ মেডিসনি ও তার বোন শাহিনা বেগম মনোনয়নের আশায় জোর তদ্ববির চালিয়ে যাচ্ছেন।


বিএনপির মুল প্রার্থী ২জনই। পুলিশের সাবেক আইজপি ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আব্দুল কাইয়ুম এবং সাবেক এমপি এম.রশিদুজ্জামান মিল্লাত। এদের দুজনের মধ্যেই যে কেউ মনোনয়ন পাবেন বলে অনেকটাই নিশ্চিত।
অতীতের নির্বাচন বিশ্লেষন করলে দেখা যায়, এ আসনে প্রতিটি নির্বাচনে প্রায় ৮০ ভাগ ভোটারই তাদের ভোটারাধীকার প্রয়োগ করে থাকেন। সে হিসাবে ২ লক্ষ ৪০ (- + ১০ হাজার) হাজার ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।
বর্তমানে উভয় দলের প্রার্থীদের ভাগ্য ঝুলে রয়েছে দলের কেন্দ্রীয় পর্যায়ে।
কিন্তু যারা প্রার্থী ও দলের ভাগ্যের নির্মাতা তাদের কথা ও বিশ্লেষনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসাবে নুর মোহাম্মদের জনপ্রিয়তা সবার চেয়ে এগিয়ে। ঠিক তার পিছনের রয়েছেন বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী এম. রশিদুজ্জামান মিল্লাত।
গত ১০ বছরে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুর মোহাম্মদ সাধারন মানুষের সাথে সম্পৃক্তিতা, ব্যক্তিগত ভাবে সাধারন মানুষকে সহযোগিতা ও দলীয় নেতাকর্মীদের চমৎকার সম্বন্বয়ের কারণে বকশীগঞ্জ উপজেলার প্রায় ৭০ ভাগ মানুষের একমাত্র পছন্দের প্রার্থী নুর মোহাম্মদ। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলাতেও নুর মোহাম্মদের ছায়া পড়েছে। সেখানেও তিনি তার অবস্থান অত্যন্ত সুসংহত করেছেন ইত্যি মধ্যেও।
গত ১০দিনে সরজমিনে ঘুরে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ডাংধরা, হাতিবান্দা, চর আমখাওয়াসহ বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের সাধারন মানুষ ও ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, উন্নয়ন বঞ্চিত দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার প্রত্যন্ত এ এলাকায় দেশের উন্নয়নের মুল ধারার সাথে সম্পৃর্ক স্থাপন করতে এবার নুর মোহাম্মদকেই প্রার্থী হিসাবে বেছে নিবেন।
১০দিন ঘুরে হাজার খানেক সর্বস্তুরের মানুষের সাথে কথা বলে তাদের ৬০ ভাগেরও বেশি মানুষ জানান, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত দেওয়ানগঞ্জ ও বকশীগঞ্জের এ আসনটি ধরে রাখতে হলে নুর মোহাম্মদের কোন বিকল্প নেই।
তবে আওয়ামীলীগের প্রার্থীর জয়ের পথ শক্ত বাঁধা হয়ে দাড়াবেন এম.রশিদুজ্জামান মিল্লাত। আকাশ-চুম্বি জনপ্রিয়তা নিয়ে মিল্লাতের অবস্থান দেওয়ানগঞ্জে বেশ সুসংহত। এম. রশিদুজ্জামান মিল্লাতের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জামালপুর-১ আসনটি ধরে রাখতে কেবল নুর মোহাম্মদকে দিয়ে সম্ভব বলে মনে করেন দেওয়ানগঞ্জ ও বকশীগঞ্জ উপজেলার ভোটারা।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102