শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার বকশীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটি বাতিল! দুই মামলায় রাশেদ চিশতির জামিন দেওয়ানগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরের ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানালেন অধ্যাপক সুরুজ্জামান বকশীগঞ্জে পৌর আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের সংর্ঘষ ।। আহত অর্ধশতাধিক বকশীগঞ্জে নারী ও শিশু ধর্ষণ প্রতিরোধে বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত দেওয়ানগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর বকশীগঞ্জে এসডিজি অর্জনে জেলা নেটওয়ার্কের ষান্মাসিক সভা অনুষ্ঠিত সরিষাবাড়ীতে পুকুরে ডুবে ভাই বোনের মৃত্যু বকশীগঞ্জে ইলিশ রক্ষায় নিজেই মাঠে নামলেন ইউএনও মুনমুন জাহান লিজা

বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেওয়ান তাজুল ইসলামের সামনে যেসব চ্যালেঞ্জ

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
  • ১২৫৩ জন সংবাদটি পড়ছেন

পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নিয়ে রশি টানাটানিতে বকশীগঞ্জ ও বাট্টাজোড় ইউনিয়নের প্রায় ৫০ হাজার ভোটার ও লক্ষাধীক মানুষ তাদের কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে। দ্রুত বকশীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন সম্পন্ন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এখন সময়ের অন্যতম দাবী।

গোলাম রাব্বানী নাদিমঃ জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে দেওয়ান তাজুল ইসলাম যোগদান করেছেন। ৮ সেপ্টম্বর
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসাবে বকশীগঞ্জে উপজেলা প্রশাসনের ইতিহাসে তিনি হচ্ছেন ৩২তম উপজেলা নির্বাহী অফিসার। বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে প্রথম হচ্ছেন আব্দুল মতিন খন্দকার। উপজেলা গঠন হওয়ার পর প্রায় ৩৫ বছর কেটে গেলেও আব্দুল মতিন খন্দকার বকশীগঞ্জ উপজেলা বাসীর হৃদয়ের মাঝে একটা বড় জায়গা দখল করে আছে।
বর্তমান সময়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে দেওয়ান তাজুল ইসলামের সামনে অনেক বড় বড় চ্যালেঞ্চ দাড়িয়ে আছে।
বর্তমানে উপজেলা সহকারী কমিশনার পদটি শুন্য এছাড়া ৫ বছর আগে গঠিত পৌর মেয়র এর পদও শুন্য। এই দুই পদসহ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দায়িত্বও তাকেই পালন করতে হবে।


সীমান্ত ঘেষা হওয়ায় এই এলাকাতে মাদকের আনাগোনা অন্যান্য উপজেলার তুলনা একটু বেশি। যদিও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা টানা অভিযান ও কার্যকরী পদক্ষেপের ফলে মাদক পুরোপুরি নিয়ন্ত্রন না হলেও এর ব্যবহার অনেকটাই কমেগেছে। বাল্য বিবাহ ও জুয়া এ এলাকা নিত্যদিনের সঙ্গী ছিল কিন্তু পুর্ববর্তী ইউএনও আবু হাসান সিদ্দিক ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসলাম হোসেনের যৌথ অভিযানে জুয়া প্রায় নির্মুলের পথে । তবে কম করে হলেও এই এলাকায় বাল্য বিয়ের প্রচলন রয়েছে।
সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনে দায়িত্ব পালনও একটি গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। সবচেয়ে আলোচিত বিষয় হচ্ছে বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন।
প্রায় ১০ আগে নির্বাচন সম্পন্ন হলেও মাত্র একটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহন স্থগিত থাকায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের শপথ অনুষ্ঠিত হচ্ছে না।
পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নিয়ে রশি টানাটানিতে বকশীগঞ্জ ও বাট্টাজোড় ইউনিয়নের প্রায় ৫০ হাজার ভোটার ও লক্ষাধীক মানুষ তাদের কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে। দ্রুত নির্বাচন সম্পন্ন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এখন সময়ের অন্যতম দাবী।
মাতৃত্বভাতা, বয়স্কভাতা, কর্মসৃজন কর্মসুচী, টি,আর, কাবিখা, কাবিটা, ভিজিডি, ভিজিএফ, এলজিএসপিসহ অন্যান্য প্রকল্পগুলি বর্তমানে চলমান রয়েছে।  কাগজে উন্নয়নের উপচে পড়া চিত্র থাকলে বাস্তবিক চিত্র অনেকটাই ভিন্ন।
বকশীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের কাজ প্রায় ১ বছর আগে সমাপ্ত হয়েছে কিন্তু এখন পর্যন্ত তা চালু করা সম্ভব হয়নি দ্রুত চালু করার ব্যবস্থা নিতে হবে।
মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের কাজ অজ্ঞাত কারণে নির্মান কাজ আটকে রয়েছে, কারণ বের করে দ্রুত নির্মাণ কাজ শেষ করে মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে তুলে দিতে হবে।
বকশীগঞ্জে সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের থাকার মত মানসম্মত কোন রেষ্ট হাউজ নেই, জেলা পরিষদ কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত বকশীগঞ্জ এনএম উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে একটি রেষ্ট হাউজ পুর্ন নির্মাণ করার বর্তমান দাবী গুলোর মধ্যে অন্যতম।
বকশীগঞ্জ কিয়ামত উল্লাহ কলেজে অর্নাস কোস চালু করার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি শিক্ষকদের মান সম্মত আবাসিক সমস্যা সমধানে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে।
প্রায় ২ বছর আগে বকশীগঞ্জ সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নিতি করণ করা হয়েছে শুধুমাত্র কাগজে কলমে। প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র ও দক্ষ জনবল সমস্যা সমধানে কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে হবে।
জনজট একটি প্রচন্ড সমস্যা, বকশীগঞ্জ পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় রাস্তার দুই ধার এখন দখলদারদের দখলে এটি দখল মুক্ত করার পাশাপাশি, বকশীগঞ্জ মধ্যবাজার দিয়ে এনএম উচ্চ বিদ্যালয় পর্যন্ত রাস্তার দুই ধারে সকল অবৈধ দখলদারদের উচেছদ করতে হবে।

বকশীগঞ্জে একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়। বিশেষ করে পুরাতন বাসস্ট্যান্ড ও মালীবাগ এলাকায়। বকশীগঞ্জ পৌর এলাকায় ২ফিট ড্রেনও ঠিকমত কাজ করে না। ড্রেনেজ ব্যবস্থা চালু করণের পাশাপাশি এর রক্ষনাবেক্ষণ করতে হবে।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102