শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৯:১৫ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :

বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে তদন্ত ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারী

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮
  • ৯৫৪ জন সংবাদটি পড়ছেন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ উচ্চ আদালতে আদেশে আগামী ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারী বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে তদন্ত অনুষ্ঠিত হবে।
নির্বাচন কমিশনের স্মারক নং ১৭.০০.০০০০.০৩.৩৮.০১৪.১৭-৬৭ তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ইং তারিখে চিঠিতে বকশীগঞ্জ পৌর নির্বাচন তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক ও নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয়-২ এর সিনিয়র সচিব মোঃ ফরহাদ হোসেন স্বাক্ষরিত একটি চিঠি দেওয়া হয়।



গত ১ জানুয়ারী নির্বাচনের কারচুপি এনে নির্বাচন বাতিল দাবি ও পুনঃ ভোট গ্রহনের জন্য উচ্চ আদালতে একটি রিট পিটিশন করে, পিটিশন নং ৫১৯/২০১৮। পিটশনে এসব দাবি খারিজ করে তদন্ত প্রতিবেদন পেশ করার জন্য নির্বাচন কমিশনকে নির্দেশ দেয় উচ্চ আদালত।
উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারী একটি তদন্ত অনুষ্ঠিত হবে।
১২ ফেব্রুয়ারী ২নং মালিচর মন্ডলপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৩নং মেষেরচর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৫নং বকশীগঞ্জ সরকারী কিয়ামত উল্লাহ কলেজ ৬নং গোয়ালগাও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উত্তরবাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার বৃন্দ, পোলিং অফিসার বৃন্দ, মনোনিত প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীর এজেন্টদের তদন্ত কমিটির সামনে স্বাক্ষী দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে ।
১৩ ৭নং বকশীগঞ্জ খয়ের উদ্দিন সিনিয়র মাদ্রাস ৮নং চরকাউরিয়া মাঝপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরকাউরিয়া মাঝপাড়া জামিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসা, ও ৯ নং টিকর কান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সকল মেয়র, কাউন্সিলর ও মহিলা কাউন্সিলর প্রতিদ্বন্দি প্রার্থী।
এছাড়া নির্বাচনে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা, সকল ভোট কেন্দ্রের দায়িত্বরত আনসার সদস্য, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা, প্রিজাইডিং অফিসার বৃন্দ, পোলিং অফিসার বৃন্দ, মনোনিত প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীর এজেন্টদের তদন্ত কমিটির সামনে স্বাক্ষী দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ ডিসেম্বর বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ১২টি কেন্দ্রের মধ্যে ১১টি কেন্দ্রেই সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু মালিরচর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন প্রার্থী ব্যালট পেপার ছিনতাই কওে জোড় পুর্বক সিল মারার চেষ্টা করলে উক্ত কেন্দ্রের ভোট গ্রহন স্থগিত করে দায়িত্বরত প্রিজাইডিং অফিসার নাসির উদ্দিন।
নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম সওদাগর ৮৯৪ ভোট পেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। তার প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৮হাজার৫৯৯। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপি প্রার্থী ফখরুজ্জামান মতিনের ভোট সংখ্যা ৭ হাজার ৭০৫। আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী শাহিনা বেগম ভোট পেয়েছেন ৫হাজার ১৬০।
গত ১ জানুয়ারী নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বাতিল দাবি করে একটি রিটপিটিশন দায়ের করে আওয়ামীলীগের দালীয় প্রার্থী শাহিনা বেগম। তার এই রিট খারিজ করে দিয়ে তদন্তের নির্দেশ দেয় উচ্চ আদালত।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102