বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৩০ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কমিটি॥ মানিক-আহ্বায়ক, মতিন- সদস্য সচিব বকশীগঞ্জ পৌর বিএনপি ॥ প্রিন্স-আহ্বায়ক, গামা-সদস্য সচিব বিডিএফডির উদ্যোগে আবুল কালাম আজাদ মেডিসিনের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল দেওয়ানগঞ্জে ওসি হিসাবে যোগ দিলেন মহব্বত কবির বশেফমুবিপ্রবি হবে আন্তর্জাতিক মানের গবেষণাভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয় : উপাচার্য সামসুদ্দিন বকশীগঞ্জে বিদ্যুৎ পৃষ্ঠে আহত একজনের মৃত্যু বকশীগঞ্জে যত্রতত্র মাছ বাজার ॥ শিক্ষার্থী ও পথচারীদের দুর্ভোগ বকশীগঞ্জে মাস্ক না পরায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা বকশীগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে অপপ্রচার পাক-ভারত সীমান্ত গোলাবর্ষণে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু

মানুষের সেবা করতে এসেছি…… ব্যারিস্টার সামি সাত্তার

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০১৮
  • ১২৫৩ জন সংবাদটি পড়ছেন

গোলাম রাব্বানী নাদিম ॥ মানুষের সেবা করতে এসেছি, অন্য কোন উদ্দেশ্যে নয় বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি ব্যারিস্টার সামির সাত্তার।



শনিবার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা কয়েকটিি ইউনিয়নে কম্বল বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের সাথে একান্ত স্বাক্ষাতকারে মিলিত হন।
তিনি সাংবাদিকদের জানান, আমার বাবা এম সাত্তার, জাতিয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য, এক সময়ে বাণিজ্য মন্ত্রী ছিলেন ও আমার চাচা আবুল কালাম আজাদ, তথ্য ও সাংস্কৃতিমন্ত্রী ছিলেন। পারিবারিকভাবেই আমি এমপি ও মন্ত্রীর স্বাদ পেয়েছি। এমপি ও মন্ত্রী হওয়া আমার ইচ্ছা নেই তবে হলে আপত্তিও নেই।

তিনি বলেন, আমি কোন দল থেকে মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করব, এটা নিয়ে অনেকই দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভোগছেন।
আমি এলাকা মানুষের জন্য কাজ করায় আমার অনেক আত্মীয় স্বজন ও নিকটত্মীয়রা চাচা আবুল কালাম আজাদের বিরক্তভাজন হবে বলে, কাছে আসতে চান না। আমি আমার পারিবারিক কোন সদস্যের বিরুদ্ধে গিয়ে কোন কাজ করব না।

তিনি আরও বলেন, আমি আর ৮/১০ জনের মত নই, আমি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি। বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ ৪টি ল ফার্মের মধ্যে আমার ল, ফার্মটি একটি। অর্থনৈতিক অবস্থার কথা যদি ধরি, বাবার অর্থের পাশাপাশি আমারও নিজস্ব একটি বৈধ আয়ের পথ রয়েছে।
সেখান থেকে সুন্দরভাবে জীবন যাপন করা সম্ভব হলেও আমার এলাকার লোকজনের সেবা করা সম্ভব নয়। তাই ব্যস্ততার মাঝেও মাসে কমপক্ষে ১বার হলেও এলাকায় ঘুরে যাই। মানুষকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করি।

তিনি বলেন, বাবা এম. সাত্তারের কারণে জাতিয় পাটিকে অনেক কাছ থেকে দেখিছি, কিন্তু তাদের আদর্শ আমার ভাল লাগেনি। আমি ছোট বেলা থেকেই স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি আওয়ামীলীগের প্রতি ভিষন দুর্বলতা ছিল, যত বড় হয়েছি দুর্বলতার পরিমান ততই বেড়ে গিয়ে এখন আওয়ামীলীগ আমার আর্দশ হয়ে গেছে।

মনোনয়ন বিষয়ে তিনি বলেন, এলাকার মানুষ যদি আমাকে ভালবাসে, তারাই তাদের যোগ্য প্রার্থী বাছাই করবে এতে আমার কিছু করার নেই। তবে কিছু পাই অথবা না পাই মানুষের সেবা করে যাব।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102