মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৪:২৮ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English

বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন ॥ আওয়ামীলীগ ও বিএনপির অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭
  • ১৫৭০ জন সংবাদটি পড়ছেন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ প্রথম বারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনটি আওয়ামীলীগ ও বিএনপি উভয় দলই নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই হিসাবে দেখছে। সাধারন ভোটারদের নিকটও এই নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন।
নবগঠিত বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে কতটা গুরুত্বপুর্ন তা প্রচার প্রচারানায় তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে।
নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামীলীগ ও বিএনপির উভয় দলের উপজেলাস্থ সংগঠনের পাশাপাশি জেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীরা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন।
উপজেলা বিএনপি পুরো কমিটি রয়েছে মাঠে। উপজেলা বিএনপিসহ দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন ছাত্রদল, যুবদল, শ্রমিকদল, কৃষকদলসহ সবাই একযোগে কাজ করছে। এমনকি জেলার সভাপতি ফরিদুল কবির তালুকদার শামীম, সাধারন সম্পাদক ওয়ারেছ আলী মামুনসহ জেলার অংগ ও সহযোগী সংগঠনও কাজ করছে।
নিজ দলের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণার জন্য সাবেক প্রধান মন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও সাবেক পুলিশের আইজিপি আব্দুল কাইয়ুমও দলের প্রার্থী জয়ে প্রচারনার জন্য মাঠে নেমেছেন।

প্রচার প্রচারণায় সরকারী দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ আরও একধাপ এগিয়ে।
আওয়ামীলীগ প্রার্থীকে জেতাতে কেন্দ্রীয় মহিলালীগের সাধারন সম্পাদকসহ একঝাক নেতাকর্মী প্রচার কাজে অংশ নিয়ে ঢাকা চলে গেছেন। জেলা পর্যায়ের শীর্ষ নেতারা প্রতিদিনই আসছেন নির্বাচনী প্রচারণায়।
ইতিমধ্যে শত ব্যস্ততার মাঝেও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ বাকী বিল্লাহ ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী একাধিকবার নির্বাচন উপলক্ষে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থনা করে গেছেন। শুধু এর মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, নেতাদের স্ত্রীদেরও মাঠে নামিয়েছেন। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকবার ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরীর স্ত্রী দিনরাত পরিশ্রম করে চলছেন।
উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুর মোহাম্মদ নিজস্ব ব্যবসা ছেড়ে মাঠে দিনরাত পরিশ্রম করছেন।
জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ মেডিসিনও দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত হওয়ার পর থেকেই এলাকায় দফাদফায় মিটিং ও প্রচারনায় অংশ নিচ্ছেন।
হঠাৎ করে কেন গুরুত্বপুর্ন হয়ে উঠলো বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন 
বিএনপির নিকট এ নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন। বিশেষ করে সাবেক আইজিপি আব্দুল কাইয়ুমের নিকট এই নির্বাচন আরও বেশি। কারণ সামনে জাতীয় নির্বাচনের এসিড টেষ্ট মনে করছে বিএনপি। এই নির্বাচনে আব্দুল কাইয়ুম মনোনিত প্রার্থী ফখরুজ্জামান মতিন। দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীকে জেতাতে পারেনি এম.রশিদুজ্জামান মিল্লাত। কিন্তু এবারের নির্বাচনে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়ে বিএনপি। যে কোন মুল্য জেতাতে চায় নিজের প্রার্থীকে। বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী জয়ী হলে আব্দুল কাইয়ুমের মনোনয়নের পথ অনেকটা সহজ হয়ে যাবে বলে দলীয় নেতাকর্মীরা মনে করছেন।

আওয়ামীলীগের নিকট এই নির্বাচন একটি এসিড টেস্ট। এই নির্বাচন জাতীয় নির্বাচনে ব্যাপক প্রভাব পড়বে মনে করেছেন দলের নেতাকর্মীরা।
উপজেলা আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থীদের টেক্কা দিয়ে মনোনয়ন পান শাহিনা বেগম। দলের প্রার্থীকে জেতাতে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুর মোহাম্মদ ও সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিজয় সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে পুরোদমে মাঠে নেমেছেন। লাভ-ক্ষতির হিসাব বন্ধ করে ‘‘ শেখ হাসিনার নৌকা মার্কায় ভোট চাই’’ এই শ্লোগানে ভোট চাইছে তারা। দলীয় প্রার্থীকে জেতাতে রাতদিন পরিশ্রম করছেন তারা। এই নির্বাচনে দলের প্রার্থীর জয় যে কোন মুল্যে নিশ্চিত করতে চায় আওয়ামীলীগ।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102