সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:০৯ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
যে কারণে স্থগিত হল বকশীগঞ্জে আ’লীগের বর্ধিতসভা জামালপুর পৌরসভা নির্বাচনঃ প্রার্থী হিসাবে অধ্যাপক সুরুজ্জামানের পরিচিতি ভাষা সৈনিক এডভোকেট আশরাফ হোসেনের ইন্তেকাল বকশীগঞ্জে হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা না থাকায় দুর্ভোগ চরমে বকশীগঞ্জে পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি রুখতে বাজার মনিটরিংয়ে ইউএনও জনগনকে থানায় যেতে হবে না, পুলিশ যাবে জনগনের কাছে.. সীমা রানী সরকার জামালপুর জেলা আ’লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা বকশীগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাঙচুর, জেলা আ’লীগের ৩ সদস্যের তদন্ত টিম গঠনের সিদ্ধান্ত নুর মোহাম্মদের পদত্যাগ পত্র গ্রহন করে নাই জামালপুর জেলা আওয়ামীলীগ বিএনপি নেতা খায়ের তালুকদারের ইন্তেকাল

৬ মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২,২৯৭, আহত ৫,৪৮০

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২ জুলাই, ২০১৭
  • ৬৩৯ জন সংবাদটি পড়ছেন

সা. বকশীগঞ্জ ডেস্ক ঃ চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই হাজার ২৯৭ জন নিহত হয়েছেন। আর আহত হয়েছেন পাঁচ হাজার ৪৮০ জন। মোট সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে এক হাজার ৯৮৩টি। নিহতদের মধ্যে ২৯২ নারী ও ৩১৫ শিশু রয়েছে। ১লা জানুয়ারি থেকে ৩০শে জুন পর্যন্ত সারা দেশে বিভিন্ন মহাসড়ক, জাতীয় সড়ক, আন্তঃজেলা সড়ক ও আঞ্চলিক সড়কে এসব প্রাণঘাতী দুর্ঘটনা ঘটে। গতকাল বেসরকারি সংগঠন নৌ, সড়ক ও রেলপথ রক্ষা জাতীয় কমিটির নিয়মিত জরিপ ও পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়। ২২টি জাতীয় দৈনিক, ১০টি আঞ্চলিক সংবাদপত্র এবং আটটি অনলাইন নিউজপোর্টাল ও সংবাদ সংস্থার তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে বলে সংগঠনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, গত মাসে ২৬৫টি দুর্ঘটনায় ৩৪ নারী ও ৪২ শিশুসহ ৩৩৩ জন নিহত ও ৬৩২ জন আহত হন। এর মধ্যে ২৩শে জুন ঈদুল ফিতরের ছুটির প্রথম দিন থেকে ৩০শে জুন পর্যন্ত আটদিনে ৭৩টি দুর্ঘটনায় ১১ নারী ও ১৫ শিশুসহ ১২০ জনের প্রাণহানি ঘটে। আর আহত হন ২২৬ জন। তবে ঈদ-যাতায়াত ব্যবস্থাপনা ও প্রাকৃতিক আবহাওয়া তুলনামূলক ভালো থাকায় এ বছর ঈদের ছুটিতে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি কম ঘটেছে বলে জাতীয় কমিটির পর্যবেক্ষণে উল্লেখ করা হয়েছে। গত বছর ঈদুল ফিতরের ছুটিতে আট দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় ১৩৩ জনের প্রাণহানি ঘটে। তবে গত বছরের তুলনায় চলতি বছর সড়ক দুর্ঘটনা ও হতাহতের সংখ্যা বেড়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়। ২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ১,৮২৬টি দুর্ঘটনায় ২৬২ নারী ও ২৬১ শিশুসহ ১,৯৪১ জন নিহত এবং ৪,৭৯৪ জন আহত হন। আর এ বছর প্রথম ছয় মাসে ১,৯৮৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২৯২ নারী ও ৩১৫ শিশুসহ ২,২৯৭ জন নিহত ও ৫,৪৮০ জন আহত হন। এই হিসাবে দুর্ঘটনা ও নিহতের হার যথাক্রমে ৮ দশমিক ৬ শতাংশ ও ১৮ দশমিক ৩৫ শতাংশ এবং আহত ১৪ দশমিক ৩১ শতাংশ বেড়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি বছরের জানুয়ারিতে ৩৫০টি দুর্ঘটনায় ৫৪ নারী ও ৫৫ শিশুসহ ৪১৬ জন নিহত ও ১,০১২ জন আহত হয়েছেন। ফেব্রুয়ারিতে ৩৭২টি দুর্ঘটনায় ৫৬ নারী ও ৫৮ শিশুসহ নিহত হয়েছেন ৪২৭ জন; আর আহত হয়েছেন ১,০৯৪ জন। মার্চে ৩৩০টি দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়েছে। এতে ৪৯ নারী ও ৫৪ শিশুসহ কমপক্ষে ৩৬২ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। আর আহত হয়েছেন ৮৬৫ জন। এপ্রিলে দুর্ঘটনা ঘটেছে ৩২০টি। এতে ৪৭ নারী ও ৪৮ শিশুসহ ৩৪৯ জন নিহত ও ৮৬১ জন আহত হয়েছেন। মে মাসে ৩৪৬টি দুর্ঘটনায় নিহত ও আহত হয়েছেন যথাক্রমে ৪১০ জন ও ১,০১৬ জন। নিহতদের মধ্যে ৫২ নারী ও ৫৮ জন শিশু। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে ২৯৫টি দুর্ঘটনায় ৫৭ নারী ও ৪২ শিশুসহ ৩৪০ জন নিহত ও ৯৪২ জন আহত হয়েছেন। ফেব্রুয়ারিতে ৩৪৯টি দুর্ঘটনায় ৫৩ নারী ও ৪৯ শিশুসহ নিহত হয়েছেন ৩৫৬ জন; আর আহত হয়েছেন ১,১২০ জন। মার্চে দুর্ঘটনা সংঘটিত হয় ২৯৬টি। এতে ৫১ নারী ও ৪১ শিশুসহ ৩০৯ জন নিহত ও ৬২৬ জন আহত হন। এপ্রিলে ২৯৬টি দুর্ঘটনায় প্রাণহানি ঘটে ৩০৯ জনের; যার মধ্যে ৩৮ নারী ও ৫২টি শিশু রয়েছে। আর আহত হন ৭০৫ জন। মে মাসে দুর্ঘটনা ঘটে ৩১৫টি; এতে ৩৫ নারী ও ৩৩ শিশুসহ ২৯২ জন নিহত ও ৫৮২ জন আহত হন। ওই বছরের জুনে ২৭৫টি দুর্ঘটনায় ২৮ নারী ও ৪৪ শিশুসহ ৩৩৫ জন নিহত ও ৮১৯ জন আহত হন। জাতীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আশীষ কুমার দে বলেন, এবার ঈদে ঘরমুখো মানুষের নিরাপদ যাতায়াতে সরকারি পদক্ষেপ বিগত বছরগুলোর তুলনায় ভালো ছিল। যে কারণে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি কম ঘটেছে। তবে অনেক ক্ষেত্রে আইন ভঙ্গ করে পণ্যবাহী ট্রাক ও বাসের ছাদে যাত্রী বহনসহ চালকদের অসতর্কতার কারণে কিছু মানুষের করুণ মৃত্যু হয়েছে। রংপুরের পীরগঞ্জে ট্রাক উল্টে একসঙ্গে ১৭ জনের করুণ মৃত্যুর জন্য চালকের খামখেয়ালিপনাকে দায়ী করেন তিনি।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2019 LatestNews
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102