সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ১১:৫২ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English

ঝগড়ারচর বাজার ॥ লক্ষ মানুষের গলায় ফাঁস

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৫ জুন, ২০১৭
  • ১৩৫৬ জন সংবাদটি পড়ছেন

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ জামালপুর-রৌমারী রাস্তায় ঝগড়ারারচর বাজারের কারণে লক্ষাধীক মানুষ দুর্ভোগের শিকার হয়ে আসছে। বিশেষ ঈদের সময় এই দুর্ভোগের পরিমানটা বেশি হয়।
সরজমিনের দেখা যায়, বকশীগঞ্জ, রাজীবপুর, রৌমারী, শ্রীবরদীর একটি অংশের প্রায় লক্ষাধীক মানুষ প্রতিনিয়তই বকশীগঞ্জ হয়ে ঢাকায় যাতায়ত করে থাকে। কিন্তু ঝগড়ারচর বাজারে অপরিকল্পিত ভাবে রাস্তা দু’পাশে ভ্রাম্যমান কিছু দোকান গড়ে উঠায় এখানে প্রতিনিয়তই যানজট লেগেই থাকে। ঝগড়ারচর বাজারের মাত্র আধা কিলোমিটার রাস্তা পাড়ি দিতে প্রায় ১ ঘন্টা লেগে যায়।
জামালপুর-বকশীগঞ্জ রাস্তা প্রতিদিন লক্ষাধিক মানুষ যাতায়ত করে। জামালপুরের সাথে বকশীগঞ্জের একমাত্র যোগাযোগ রাস্তা এটিই।
এমনিতে রাস্তুটি সুরু হওয়ায় একটি বড় গাড়ী ৩ চাকার সিএনজিকে সাইড দিতে ১০ মিনিট সময় লেগে যায়।
মাত্র ৩৬ কিলোমিটার রাস্তা পারি দিতে দেড় ঘন্টারও বেশি সময় লেগে যায়। এমনিতে সুরু রাস্তা এরপর ঝগড়ারচর বাজারের আধা কিলোমিটার রাস্তা পাড়ি দিতে সময় লেগে যায় ১ ঘন্টা।
সিএনজি চালক ইব্রাহিম জানান, রাস্তা থেকে একটু দুরে দোকান গুলো বসলে এখানে কোন যানজটের সৃষ্টি হত না। এখানে যানজটের ফলে ৩০ সেকেন্ডের রাস্তা ঘন্টা পার হয়ে যায়।
অপর সিএনজি চালাক আব্দুর রহিমের কণ্ঠেও একি কথা, সরকারী জায়গা ছেড়ে দোকান গুলো বসলে এখানে যানজট হওয়ার কথা নয়।
মোটরসাইকেল চালক আব্দুর রশিদ জানান, অপরিকল্পিত ভাবে সরকারী রাস্তার উপর দোকান বসার ফলে এখানে প্রতিদিন এখানে যানজট লেগেই থাকে।
বাস চালক আব্দুল সাত্তার জানান, সরকারী জায়গায় অবৈধভাবে ভ্রাম্যমান দোকান স্থাপন হওয়ায় আধাকিলোমিটার রাস্তায় পাড়ি দিতে প্রায় ১ ঘন্টা সময় লেগে যায়। এ সমস্যা সমধানে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।
এ বিষয়ে শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাবিবা নাসরিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবির জানান, এ বিষয়ে শেরপুর জেলা প্রশাসককে জানিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102