মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৫৯ পূর্বাহ্ন
Bengali Bengali English English
সদ্য পাওয়া :
বকশীগঞ্জ প্রেসক্লাবে অতিরিক্ত সচিব শাওলী সুমনের রূহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল বক‌শীগঞ্জ উপ‌জেলা বিএন‌পি`র আহ্বায়ক ক‌মি‌টির প‌রি‌চি‌তি সভা বকশীগঞ্জ ২ হাজার ভারতীয় জাল রুপিসহ আটক ৭ বকশীগঞ্জে শিশু হত্যা, পিতার মৃত্যুদণ্ড বকশীগঞ্জ বিএনপির সংবাদ সম্মেলন, কমিটির আত্ম প্রকাশ শিক্ষা ও গবেষণায় এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকারে বশেফমুবিপ্রবি’র বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন দলকে সুসংগঠিত করাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্চ… মানিক সওদাগর আরব সাগরে ভেঙে পড়লো ভারতীয় যুদ্ধবিমান, পাইলটের মৃত্যু বকশীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কমিটি॥ মানিক-আহ্বায়ক, মতিন- সদস্য সচিব বকশীগঞ্জ পৌর বিএনপি ॥ প্রিন্স-আহ্বায়ক, গামা-সদস্য সচিব

মাদক নিয়ন্ত্রণে বকশীগঞ্জ ওসির কৃীতি-১

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১২ জুন, ২০১৭
  • ৮৫৯ জন সংবাদটি পড়ছেন

মাদকের রাজধানী রামরামপুর

রামরামপুর থেকে ফিরেঃ
মাদকের ভয়াল গ্রাসে যখন সারা সীমান্তসহ পুরো বকশীগঞ্জ বিপর্যস্থ তখনি আর্শিবাদ হয়ে আসেন বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত (কর্মকর্তা) ওসি আসলাম হোসেন। ওসি আসলাম হোসেন বকশীগঞ্জ থানায় যোগাদানের পর থেকেই মাদকের স্পটগুলোতে একের একের পর অভিযানের ফলে বকশীগঞ্জ এখন প্রায় মাদক শুন্য। এক সময় বাট্টাজোড় এলাকার নালার মোড় ছিল মাদকের ভয়াবহ স্পট। সেখানে বেশ কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটকের পর পর মাদকের বলয় অনেকটাই ভেঙ্গে গেছে।
থানা সংলগ্ন ঋষিপাড়া ছিল বাংলা মদের খনি। বকশীগঞ্জ ও পাশ্ববর্তী শ্রীবরদী থেকে অনেক মাদকসেবীরা এসে এখানে মাদক সেবন করত। ওসি আসলাম হোসেন যোগদানের পরপর সেটিকে ভেঙ্গে দেন।
পুরাতন গরুহাটি রোডে সুইপার কলনিতেও ছিল মাদকের আড়ত। সেখানেই তিনি অভিযান চালিয়ে ভেঙ্গে দেন।
এর পর মাদকের রাজধানী হিসাবে পরিচিত রামরামপুর। সেখানেও একের পর এক অভিযানের ফলে প্রায় মাদক শুন্য হয়েছে পুরো বকশীগঞ্জ।
বকশীগঞ্জের কামালপুর ও বগারচর ইউনিয়নের রয়েছে বিশাল অরক্ষিত ভারতীয় সীমান্ত । এ সীমান্ত অঞ্চল দিয়ে মাঝে মধ্যেই ফেন্সিডিল প্রবেশ করলেও সম্প্রতি বেশ কয়েকটি অভিযানে মাদক ব্যবসায়ীরা গ্রেফতারের ফলে মাদক আসা বন্ধ হয়েছে।
ফলে মাদকের হা হা কার চলছে বকশীগঞ্জে। কিন্তু পাশ্ববর্তী ঝগরারচর এলাকায় বেশকয়েকটি স্পট থাকায় বকশীগঞ্জের মাদক সেবীরা সন্ধ্যা হলেই ঝগরারচর চলে যায়। সেখানেই তারা সেবন করে চলে আসে।
গত ৯ জুন শুক্রবার ছন্দবেশে যাওয়া হয় মাদকের রাজধানী রামরামপুরে। সেখানে গিয়ে ভারতীয় মদ সংগ্রহের চেষ্টা করা হয়।
যোগাযোগ হয় সম্প্রতি মাদক ব্যবসার অভিযোগে গ্রেফতার হয়ে কারাগার থেকে ফেরত আসা এক মাদক ব্যবসায়ীর সাথে।
তিনি জানালেন বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি কথা। তিনি স্পষ্ট করেই জানান, বকশীগঞ্জ থানার ওসি আসলাম হোসেন এ থানায় থাকাকালীন আর মাদক ব্যবসায় ফিরবেন না। তিনি চলে গেলে বিষয়টি ভেবে দেখবেন।
তারপরেও অনেক অনুরোধে তিনি দিলেন আরেক ঠিকানা। সেই ঠিকানা মত যোগাযোগ করলে সেই মাদক ব্যবসায়ী জানান, ওসি আসলাম হোসেনের কথা। এ থানায় থাকাকালীন কোন মাদক ব্যবসা নয়।
প্রায় ৩ ঘন্টা নিরন্তর চেষ্টা করার পর শুন্য হাতেই ফিরতে হল।
রোজার কারণে বন্ধ থাকা রামরামপুরের একটি চায়ের দোকানে কথা হল এক এলাকাবাসী নুরুল ইসলামের সাথে। তিনি জানালেন ’’ সকাল ৬ টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত এই রামরামপুরে বকশীগঞ্জ, ইসলামপুর, শ্রীবরদী, শেরপুর থেকে মোটরসাইকেল যোগ শত শত যুবক ছেলেরা আসত। তারা এখানে এসে মাদক সেবন করত ও কিনে নিয়ে যেত। কিন্তু এখন আর কেউ আসে না।
অপর গ্রামবাসী মোসলিম উদ্দিন জানালেন একই কথা। তিনি বলেন ’’ মাদকের স্পট গুলি ভেঙ্গে গেছে । শত চেষ্টা করেও এখন আর মাদক মিলবে না’’
পরে ব্যর্থ একটি দিনের অভিযান শেষ করেই ফিরতে হল ।
আগামী পর্বে দেখুনঃ বাল্য বিয়ে নিয়ন্ত্রনে ওসির কৃীতি-২

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরও সংবাদ
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102