সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০২:৫৫ অপরাহ্ন
Bengali Bengali English English

জামালপুরে অবৈধ ইজিবাইকের বৈধ চলাচল!

সংবাদদাতার নামঃ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২ জুন, ২০১৭
  • ৮৪৩ জন সংবাদটি পড়ছেন

এম. কে. দোলন বিশ্বাস, জামালপুর : জামালপুরে পৌর শহরে প্রতিদিন অন্তত সাড়ে পাঁচ হাজার অবৈধ ইজিবাইকের বৈধ চলাচল হচ্ছে। এতে পৌর শহরের কয়েকটি সড়কে তীব্র যানজটের কারণে প্রতিদিন লক্ষাধিক পথচারী মানুষ চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। শহরের বাসিন্দাদের অভিযোগ, শহরে মাত্রাতিরিক্ত ইজিবাইক চলাচল করায় যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। শহরে অধিকাংশ ইজিবাইকই অবৈধভাবে চলাচল করছে।
জামালপুর পৌর কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, জামালপুর শহরে দুই হাজার ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক চলাচলের অনুমতিপত্র (লাইসেন্স) দিয়েছে পৌর কর্তৃপক্ষ। কিন্তু চলাচল করছে সাড়ে পাঁচ হাজার। বাইরের ইজিবাইক শহরে ঢুকতে পৌর কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন পয়েন্টে বাধা দিয়েও তা নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। এ কারণে প্রতিদিনই তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।
রোববার (২ জুন) সরেজমিনে দেখা যায়, শহরের কেন্দ্রীয় বাসস্ট্যান্ড থেকে সদর হাসপাতাল পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার সড়কে যানজট। মাত্রাতিরিক্ত ইজিবাইক চলাচল করায় সড়কের এই অংশের রেলগেইটপাড়, শফি মিয়ার বাজার মোড়, দয়াময়ী মোড়, কথাকলি মার্কেট এলাকা, তমালতলা এলাকা, বাইপাস মোড়, সকাল বাজার বড় মসজিদ মোড়, জজ আদালত ও জেনারেল হাসপাতালের সামনে ইজিবাহকসহ অন্যান্য যান ধীরে ধীরে চলছে। এর মধ্যে এই সড়ক দিয়ে দূরপাল্লার বাস-ট্রাকসহ সব ধরনের যানবাহন চলাচল করে।
পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে, ২০১০ সাল থেকে জামালপুর শহরে ইজিবাইক নামানো হয়। গত সাড়ে ছয় বছরে ইজিবাইকের সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়েছে। গত বছর সিদ্ধান্ত হয়, শহরে দুই হাজার ইজিবাইক চলাচল করবে। সেই লক্ষ্যে পৌর কর্তৃপক্ষ দুই হাজার ইজিবাইকের লাইসেন্স দিয়েছে। বাকি তিন হাজার ইজিবাইক শহর থেকে সরাতে পারেনি পৌর কর্তৃপক্ষ।
শহরের সরদারপাড়া এলাকার বাসিন্দা রাসেদ মিয়া জানান, ‘আমি বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আন্তনগর ট্রেন তিস্তা এক্সপ্রেসে ইসলামপুর উপজেলায় যাওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হই। কিন্তু সরদারপাড়া থেকে জামালপুর রেলস্টেশন মাত্র পাঁচ মিনিটের পথ হলেও যানজটের কারণে ৪০ মিনিটেও গিয়ে ট্রেনটি ধরতে পারিনি। নিয়ন্ত্রণহীন ইজিবাইকের কারণে শত শত মানুষ এমন দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।’
জামালপুর নগর উন্নয়ন কমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর সেলিম জানান, ‘দীর্ঘদিন ধরে বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন সময় প্রশাসনের লোকজন আলোচনা করেছেন। কিন্তু পৌর কর্তৃপক্ষের তেমন কোনো উদ্যোগ দেখা যায়নি।’
জামালপুর পৌরসভার মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম জানান, ‘ইজিবাইক নিয়ন্ত্রণে অনেক চেষ্টা করা হয়েছে। অভিযান চালিয়ে ইজিবাইক আটক করলে চালকেরা কান্নাকাটি ও পৌরসভার কার্যালয় ঘেরাও করে। যানজট নিয়ন্ত্রণে প্রধান সড়ক বড় করার পরিকল্পনা চলছে।’

পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরও সংবাদ

Site Statistics

  • Users online: 0 
  • Visitors today : 5
  • Page views today : 5
  • Total visitors : 258,042
  • Total page view: 342,831
সাপ্তাহিক বকশীগঞ্জ
        Develop By CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102